কক্সবাজারে পর্যটকের সাথে প্রতারণা, দুইজনের কারাদণ্ড

0
34
কক্সবাজারে পর্যটকের সাথে প্রতারণা, দুইজনের কারাদণ্ড

মো.শাহাদত হোছাইন, কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি। কক্সবাজারে পঁচা ও নিম্নমানের শুটকি বিক্রির দায়ে সুগন্ধা বিচের রুবেল ও সাইফুল নামের দুই দোকানিকে ৩ দিন করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দুপুরে কক্সবাজার বিজ্ঞ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আহসানুল ইসলাম তাদের কারাদণ্ডাদেশ দেন। ট্যুরিস্ট পুলিশ কক্সবাজার রিজিয়নের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রেজাউল করিম জানান, ওসিকুর রহমান নুর নামে একজন পর্যটক শুটকি কিনে প্রতারিত হয়েছেন মর্মে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি স্ট্যাটাস দিলে আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়।

তাৎক্ষণিক আমি ভুক্তভোগীর সাথে যোগাযোগ করি। অভিযোগকারির দেয়া তথ্য মতে সোমবার সন্ধ্যায় সুগন্ধা বিচ রোডের পাশে অবস্থিত শুটকির ভ্রাম্যমাণ দোকানগুলোতে অভিযান চালানো হয়। অভিযানে দোকান থেকে অভিযোগকারির কেনা শুটকির মত অনেক পঁচা ও নিম্নমানের শুটকি পাওয়া যায়। শুটকি সহ রুবেল ও সাইফুল নামের দুই দোকানদারকে আটক করা হয়। মঙ্গলবার দুপুরে বিচারের জন্য কক্সবাজার সদর আদালতে তাদের প্রেরণ করলে আদলাত তাদের কারাদণ্ড দেন।

তিনি আরও জানান, সকল ধরনের ভেজাল দ্রব্য বিক্রির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে। কোন পর্যটক কোন প্রকার হয়রানি বা প্রতারণার শিকার হলে ট্যুরিস্ট পুলিশের (০১৩২০১৫৯০৮৭) নাম্বারে অভিযোগ করলে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে। শুটকি কেনার ক্ষেত্রে সকল পর্যটককে বেশ কয়েকটি পরামর্শ দেন ট্যুরিস্ট পুলিশের এই কর্মকর্তা। পরামর্শ গুলো হলোঃ ১. দামে কম মানে ভাল এমন শুটকি কেনা থেকে বিরত থাকবেন। কম দামি শুটকির মান খারাপ হবেই। ২. ফুটপাতের পাশ থেকে বা ভ্রাম্যমাণ দোকান থেকে শুটকি না কেনাই শ্রেয়। ৩. প্যাকেট করা থাকলে খেয়াল করবেন একপাশে পত্রিকা বা কোন কাগজের টুকরা দেয়া আছে কিনা।

এসব প্যাকেটে উপরে কিছু ভাল শুটকি দিয়ে নিচে খারাপ শুটকি দেয়। ৪. শুটকি কেনার ক্ষেত্রে দোকানদারের কথা বিশ্বাস না করে নিজে দেখে, হাতে নিয়ে মেপে তারপর কিনুন। ৫. যে সকল স্থায়ী দোকান বা মার্কেট রয়েছে সে সকল দোকান থেকে শুটকি কেনাই শ্রেয়।