রোহিঙ্গাদের ক্যাম্পে বিক্ষোভে ফাঁকা গুলি, পুলিশসহ আহত ১৫,রোহিঙ্গাদের মর্যাদাহানি হয়েছে।

রেশন প্রদানে নতুন ও পুরাতন রোহিঙ্গাদের সমান মূল্যায়নে মর্যাদাহানির দাবি তুলে বিক্ষোভের চেষ্টা চালিয়েছে কক্সবাজারের টেকনাফের নয়াপাড়া রেজিষ্ট্রার (নিবন্ধিত) ক্যাম্পের রোহিঙ্গারা। রবিবার (১ আগস্ট) সকালে রোহিঙ্গাদের বিক্ষোভে থামাতে ঘটনাস্থলে আসে এপিবিএন সদস্যরা। এ সময় বিক্ষোভ চেষ্টাকারী রোহিঙ্গাদের বিক্ষিপ্ত ভাবে ছুঁড়া ইটপাটকেলে এপিবিএনের ১০-১২ সদস্য আহত হয়েছেন।

২০১৭ সালে আসা রোহিঙ্গাদের জন্য ইস্যু করা ফুড কার্ড ও পুরনো রোহিঙ্গাদের জন্য তৈরি ফুড কার্ডের ধরণ হুবহু হওয়ায় একে মর্যাদাহানি বলে দাবি করে পুরাতন রোহিঙ্গারা রেশন নেওয়া বন্ধ রেখেছে। ক্যাম্পে দায়িত্বরত ১৬ এপিবিএন অধিনায়ক (এসপি) তারেকুল ইসলাম তারিক এ তথ্য জানিয়েছেন।

কিন্তু সম্প্রতি পুরনো নিবন্ধিত রোহিঙ্গারা আবিষ্কার করেন তাদের ও নতুন রোহিঙ্গাদের জন্য তৈরি ফুড কার্ডের রং ও ধরণ একই। এটাকে তারা তাদের মর্যাদাহানি বলে মনে করে হুবহু কার্ড নিয়ে জুলাই মাসের রেশন উত্তোলন করেনি নয়াপাড়া রেজিঃ ক্যাম্পে ১৯৯১-৯২ সালে আসা পুরাতন রোহিঙ্গারা।
ক্যাম্পের রোহিঙ্গা নেতা মোহাম্মদ ইসলাম বলেন, নতুন রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ড এবং পুরাতন রোহিঙ্গাদের ফুড কার্ড একইরকম হওয়াতে রেজিঃ ক্যাম্পের রোহিঙ্গাদের সমান মর্যাদাহানি হয়েছে। এটি কোনো ভাবেই মেনে নেয়া যায় না।

টেকনাফ নয়াপাড়া রেজিস্ট্রার্ড(ক্যাম্প-২৫) ক্যাম্পের ইনচার্জ (সিআইসি) উপ-সচিব মো. আবদুল হান্নান জানান, হয়তো ভুল ধারণা থেকে এমনটি করছে তারা। আমরা এদের সাথে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি তারা রেশন নেওয়া শুরু করবে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতাও কামনা করেন তিনি।