মালদ্বীপে বাংলাদেশ দূতাবাসের উদ্যোগে

বাংলাদেশের পঞ্চাশতম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে অনলাইনে অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে মালদ্বীপের বাংলাদেশ দূতাবাস।

মোহাম্মদ মাহামুদুল মালদ্বীপ প্রতিনিধি।
বাংলাদেশের পঞ্চাশতম স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মালদ্বীপস্থ বাংলাদেশের দূতাবাসের উদ্যোগে অনলাইন অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। ২৮ মার্চ, রবিবার সকাল ১১ টার সময় এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

দুতালয় প্রধান মোহাম্মদ সোহেল পারভেজ এর সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। মালদ্বীপের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পররাষ্ট্র মন্ত্রী আব্দুল্লাহ শহীদ।

এই অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান।

অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের জাতীয় সংগীত পরিবেশন করা হয়। এরপর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মহান স্বাধীনতার উপর দেয়া বক্তব্য উপস্থিত অতিথিদের প্রদর্শন করা হয়।

রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসান তাঁর বক্তব্যের শুরু জাতির পিতা বংগবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ আজ সারা বিশ্বের কাছে উন্নয়নের রোল মডেল। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে দেশ অর্জন করেছে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা।
সেদিন আর বেশি দূরে নয় যেদিন বাংলাদেশ অর্জন করবে উন্নত দেশের মর্যাদা।

অনুষ্ঠানে স্বাধীনতা যুদ্ধের ইতিহাস এবং পরবর্তী সময়ে আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের উপর একটি ভিডিও ক্লিপ প্রদর্শন করা হয়। এছাড়া,বাংলাদেশ ও মালদ্বীপের মধ্যে চমৎকার দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের উপর একটি ভিডিও ক্লিপ প্রদর্শন করা হয়।

এই অনলাইন অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।
ভারতের রাষ্ট্রদূত, জাপানের রাষ্ট্রদূত ও চীনা রাষ্ট্রদূত, শ্রীলংকার রাষ্ট্রদূত সহ ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন সমূহের প্রধানগণ। মালদ্বীপে অবস্হানরত বিশিষ্ট বাংলাদেশী প্রবাসীগণও অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে তাদের মূল্যবান মতামত দেন।

প্রধান অতিথি মালদ্বীপের পরাষ্ট্রমন্ত্রী আব্দুল্লাহ শাহীন তার বক্তব্যে বাংলাদেশের সরকার, জনগণ ও বাংলাদেশ হাই কমিশনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি উল্লেখ করেন যে, দুই দেশের সম্পর্কে নতুন গতির সঞ্চার হয়েছে।

আমন্ত্রিত অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন দূতালয় প্রধান জনাব সোহেল পারভেজ।