এখনকার সমাজে শিক্ষিত চোর বেশী,

সাইদুর রহমান মিন্টু
বিজ্ঞাপন

অতিথি লেখক

এখনকার সমাজে শিক্ষিত চোর বেশী,

শিক্ষিত হয়ে কি লাভ যদি মনুষ্যত্ব বোধ না থাকে,
তখন হয়তো আমি ক্লাস তৃতীয় কিংবা চতুর্থ শ্রেনীতে পড়ি,টিচার বলেছিল শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড,,

বাসায় এসে মাকে জিজ্ঞেস করলাম,মা মেরুদণ্ড কি.?
মা পিঠের হাড় দেখিয়ে বলেছিলেন এইটা মেরুদণ্ড।
আমি বলেছিলাম তাহলে স্যার যে বললো শিক্ষাই জাতির মেরুদণ্ড, পরে মা অনেক কিছুই বোঝালেন।
সারমর্ম ছিল মানুষ শিক্ষিত না হলে সমাজ উন্নত হবেনা,
সমাজ উন্নত না হলে দেশ উন্নত হবে না।
হ্যাঁ সত্যিই আজ আমরা শিক্ষিত জাতি,আমাদের অনেক,উন্নতি হয়েছে
বৃদ্ধা আশ্রমে দেখা যায় সব সর্বোচ্চ ডিগ্রী ধারীদের মা,বাবাকে।
কোন মূর্খ ছেলে মেয়ের মা,বাবাকে নয়।
আমাদেরকে দেশের যতগুলো নাস্তিক আছে,তারাও কিন্তু উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত, একজনকে মূর্খ পাওয়া যাবেনা।
পরিবেশ বান্ধাব সবুজ রড তাও উচ্চ ডিগ্রীপ্রাপ্ত দুর্নীতি বাজ ইঞ্জিনিয়ারে আবিষ্কার।
ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি সেটাও উচ্চ শিক্ষার ফলাফল। ✒✑ কলমের একটা লিখার দিয়ে হাজার কোটি টাকা, ও অসহায় মানুষের সাথে চিটারি বাটপারি সহ এই কাজগুলোর সাথে কিন্তু মুর্খ লোকের কোন ভাবে কোন সম্পিক্ততা নাই।

শিক্ষিত মান্যগণ্য জগন্য ব্যক্তিদের প্রশংসা করে শেষ
করা যাবেনা।
তার অর্থ এই নয়,যে আমি শিক্ষার বিপরীত আমাদের শুধু শিক্ষা গ্রহন করলেই হবেনা,আমাদের সুশিক্ষাও গ্রহন করতে হবে।
পরিশেষে বলতে চাই মানুষ, মানুষের জন্য আমরা কাউকে অপমান অপদস্ত না করি,একজনকে অপমান করলে, সে অপমান নিজেরই হয়.

এএনবি২৪ /

googel
বিজ্ঞাপন