করোনার মধ্যেই ডেঙ্গু নিয়ে উদ্বেগ বাড়ছে ঢাকায়

দেশে চলছে করোনা মহামারির তাণ্ডব। এর মধ্যেই বাড়ছে ডেঙ্গুর প্রকোপ। বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় ২১ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তাদের মধ্যে রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে ১৯ জন ভর্তি হয়েছেন।
স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুম সূত্রে জানা যায়, চলতি মাসের প্রথম দুই সপ্তাহে ২১৯ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। যা চলতি বছরের মধ্যে সর্বোচ্চ সংখ্যক। মাসওয়ারি সংক্রমণের হিসাবে, এর আগে জানুয়ারিতে ১৯৯ জন, ফেব্রুয়ারিতে ৪৫ জন, মার্চে ২৭ জন, এপ্রিলে ২৫ জন, মে মাসে ১০ জন, জুনে ২০ জন, জুলাইয়ে ২৩ জন, আগস্টে ৬৮ জন, সেপ্টেম্বরে ৪৭ জন ও অক্টোবরে ১৬৩ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হন। বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৮৫ জনে।
এর মধ্যে রাজধানীতে ৮২ জন ও ঢাকার বাইরের হাসপাতালে তিনজন। এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে পাঁচজনের মৃত্যুর তথ্য পর্যালোচনার জন্য রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানে (আইইডিসিআর) পাঠানো হয়। তার মধ্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা দুজনের মৃত্যুর ঘটনা পর্যালোচনা করে একজন ডেঙ্গুতে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত হন।
এদিকে ঢাকা সিটি করপোরেশন এলাকায় এডিস মশার বিস্তার বাড়ছে। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন এলাকায় চলতি মাসেও অভিযান চালিয়ে এডিস মশার লার্ভা শনাক্ত করা হয়েছে। এতে রাজধানীবাসীর মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।
গত ১১ই নভেম্বর স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক সংক্রামক ব্যাধি নিয়ন্ত্রণ (সিডিসি) শাখার পরিচালক ডা. শাহনীলা ফেরদৌসি গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন, করোনা সংক্রমণের পাশাপাশি সারাদেশে বিশেষ করে রাজধানীতে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে ঢাকা সিটি করপোরেশন বা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পাাশাপাশি পারিবারিক পর্যায়ে সব শ্রেণি ও পেশার মানুষের সচেতনতা বেশি প্রয়োজন।