বাইডেনকে অভিনন্দন আইরিশ প্রধানমন্ত্রীর

অনলাইন ডেস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ায় জো বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়েছেন বিশ্বনেতারা। জো বাইডেনকে অভিনন্দন জানিয়ে আইরিশ প্রধানমন্ত্রী মাইকেল মার্টিন টুইটে বলেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের নতুন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনকে অভিনন্দন। পুরোটা জীবন তিনি এই জাতির একজন সত্যিকার বন্ধু। সামনের দিনগুলোতে তার সঙ্গে কাজ করতে চাই।’

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোটে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ে বর্তমান প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরাজিত করেছেন ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন। এদিকে, ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রচারণা শিবির ইঙ্গিত দিয়েছে, তাদের প্রার্থী পরাজয় স্বীকার করবেন না। শনিবারের (৭ নভেম্বর) ফলাফলে ১৯৯০ সালের পর ক্ষমতাসীন কোনো প্রেসিডেন্টের প্রথম হার এটি। নির্বাচনী ফল নির্ধারণকারী পেনসেলভেনিয়া জয়ের পর প্রেসিডেন্টের আসন নিশ্চিত করলেন বাইডেন।

বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ২৭০ ইলেকটোরালের লক্ষ্যমাত্রা পার হয়ে ২৭৩টি ইলেক্টরাল কলেজ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন ডেমোক্র্যেট পার্টির প্রার্থী জো বাইডেন। বর্তমান ফল অনুযায়ী ট্রাম্প ২১৪টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়েছেন। গত দুদিনের বেশি সময় ধরে ২৬৪ ইলেকটোরাল কলেজ ভোট নিয়ে এগিয়েছিলেন বাইডেন। এগিয়ে ছিলেন নেভাদায়। সেখানে ৬টি ইলেকটোরাল ভোট রয়েছে। ধারণা করা হয়েছিল সেখানে ট্রাম্পকে হারিয়েছে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়ে যাবেন তিনি। কিন্তু সেখানকার ফলাফল এখনো আসেনি।
জর্জিয়ায় ট্রাম্পকে পেছনে ফেলে এগিয়ে যান বাইডেন। ইলেকটোরাল সংখ্যা ১৬টি। তারপর শনিবার পেনসিলভেনিয়ায় এগিয়ে যান বাইডেন। সেখানে ইলেকটোরাল কলেজ সংখ্যা ২০টি। শনিবার স্থানীয় সময় দুপুরে পেনসিলভেনিয়ার রাজ্যের ভোট গণনা শেষ হয়। তারপর বাইডেনের জয়ের আনঅফিসিয়াল তথ্য প্রকাশ করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম। ভোট গণনা শেষ হওয়ার আগে নিজেকে জয়ী দাবি করেন ট্রাম্প। পরে ডেমোক্র্যাটদের বিরুদ্ধে কারচুপি, প্রতারণার অভিযোগ তোলেন। রিপাবলিকানরা মামলাও করেন বেশ কয়েটি রাজ্যে। ট্রাম্প এই নির্বাচনে অবৈধ ভোটের অভিযোগ করে শনিবার এক টুইটে ট্রাম্প লেখেন, ‘মঙ্গলবার রাত ৮টার পর কয়েক হাজার অবৈধ ভোট পড়েছে, যা নির্বাচনী যুদ্ধের ক্ষেত্রগুলোর ফলাফল পরিবর্তন করেছে।’
তিনি আরও লেখেন, ‘নির্বাচনের দিন পেনসিলভানিয়া ও এরকম আরও অন্য রাজ্য, যেখানে খুব অল্প ব্যবধান ছিল, সেখানকার ফলাফল সম্পূর্ণ ও পুরোপুরিভাবে পাল্টে দেওয়া হয়েছে।’

ট্রাম্পের এই টুইটের প্রতিক্রিয়ায় টুইটার কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই অভিযোগ ‘বিভ্রান্তিকর’ ও ‘বিতর্কিত’ হতে পারে।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব পরিস্থিতির কারণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এবার আগাম ভোট পড়েছিল প্রায় ১০ কোটি। এরপর গত মঙ্গলবার (৩ নভেম্বর) ভোটগ্রহণ হয়।

বিডি প্রতিদিন