দুর্নীতির মামলা : পার্থ গোপাল বণিকের বিচার শুরু

দুর্নীতির মামলায় সাময়িক বরখাস্ত হওয়া সিলেটের কারা উপমহাপরিদর্শক পার্থ গোপাল বণিকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এর ফলে আনুষ্ঠানিকভাবে তাঁর বিচার শুরু হয়েছে।

আজ বুধবার ঢাকার বিশেষ জজ-১০-এর বিচারক নজরুল ইসলাম এই আদেশ দেন। বিচারক সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ১৮ নভেম্বর দিন ধার্য করেছেন।

আদালতে পার্থ গোপাল বণিককে দোষী কিংবা নির্দোষ জিজ্ঞাসা করলে তিনি নিজেকে নির্দোষ দাবি করে ন্যায়বিচার প্রার্থনা করেন।

এর আগে গত ২৪ আগস্ট ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক মো. সালাহউদ্দিন অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

এজাহার থেকে জানা যায়, গত বছরের ২৮ জুলাই ধানমণ্ডির ভূতের গলিতে পার্থ গোপাল বণিকের বাসায় অভিযান চালিয়ে ৮০ লাখ টাকা জব্দ করে দুদক। এর আগে ওই দিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত দুদকের সেগুনবাগিচার প্রধান কার্যালয়ে কমিশনের পরিচালক মুহাম্মদ ইউছুফের নেতৃত্বে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় পার্থ গোপাল বণিককে।

ওই দিন দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছিলেন, ঘুষ ও দুর্নীতির কয়েক লাখ নগদ টাকা তাঁর বাসায় রয়েছে—এমন তথ্যের ভিত্তিতে বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে পার্থ গোপাল বণিকের বাসায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানে ৮০ লাখ টাকা জব্দ করা হয় এবং তাঁকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসা হয়। পরে দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১-এ দুদকের সহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধান দলের নেতা মো. সালাউদ্দিন বাদী হয়ে তাঁর বিরুদ্ধে মামলা করেন।

গত বছরের ৩০ জুলাই স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগ রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে পার্থ গোপাল বণিককে গ্রেপ্তারের দিন থেকে সাময়িক বরখাস্ত করে।