সাইদুর রহমান মিন্টু
বিজ্ঞাপন

✍ ডেস্ক রিপোর্ট

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনের প্রয়োজন রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জিএম কাদের। তিনি বলেন, আমরা জাতীয় পার্টির পক্ষ থেকে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনের বিষয়ে সংসদে কথা বলেছিলাম। এ আইনের যে ধারাগুলো নিয়ে আপনাদের আপত্তি রয়েছে, সেগুলো বাতিলের দাবি করেছিলাম। কিন্তু আমাদের সংসদীয় পদ্ধতি এমন যে, সরকার যেটা চাইবে তার বাইরে সংসদের যাওয়ার কোনো উপায় নেই। আমি মনে করি, ডিজিটাল সিকিউরিটি আইন সংশোধনের প্রয়োজন আছে। আপনারা চাইলে আমরা আবারও বিষয়টি সংসদে তুলে ধরতে পারি।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) রজতজয়ন্তী উৎসব উপলক্ষে শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর কাকরাইল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত ‘রিপোর্টার্স চ্যালেঞ্জ: রিয়েল নিউজ ভার্সেস ফেক নিউজ’ শীর্ষক এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

জিএম কাদের বলেন, সাংবাদিকরা সমাজের উন্নয়নে বড় ধরনের ভূমিকা পালন করছেন। আমরা চাই সেই ভূমিকা সাংবাদিকরা ভবিষ্যতে আরো দক্ষতার সঙ্গে পালন করবেন। সাংবাদিকদের সেই ভূমিকা পালন করতে গিয়ে যে সুযোগ-সুবিধা প্রয়োজন আমরা রাজনীতিবিদরা সর্বাত্মক সহযোগিতা করব।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, ফেক আইডি দিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় অপব্যবহার করা হচ্ছে। আমি মনে করি, এসব বিষয়ে সরকারের ব্যবস্থা নেয়া উচিত। কেউ ফেক আইডি খুলে সামাজিক মাধ্যমে যেন কোনো ধরনের অপপ্রচার না চালাতে পারেন। দেশের বাইরে থেকেও অনেক সময় নানা ধরনের অপপ্রচার চালানো হয়। আমাদের দেশের মিডিয়াগুলোকে যদি সব ধরনের কথা বলার সুযোগ করে দেয়া হয়, তাহলে দেশের বাহির থেকে প্রচারিত অপপ্রচার খুব বেশি ফলপ্রসূ হবে না।

বিশেষ অতিথি হিসেবে ভার্চুয়াল মাধ্যমে যুক্ত হয়ে আলোচনায় অংশ নেন দ্যা ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহ্ফুজ আনাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক শফিউল আলম প্রধান, দৈনিক নয়া দিগন্ত সম্পাদক আলমগীর মহিউদ্দিন। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন একাত্তর টিভির হেড অব নিউজ শাকিল আহমেদ।

আলোচনা করেন জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, ডেইলি সান সম্পাদক এনামুল হক চৌধুরী, ডেইলি এশিয়ান এইজের কনসালটেন্ট এডিটর মোস্তফা কামাল মজুমদার, নিউইয়র্ক টাইমসের সাংবাদিক জুলফিকার আলি মানিক প্রমুখ। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন ডিআরইউ সাবেক সভাপতি এম শফিকুল করিম ও ডিআরইউর অর্থ সম্পাদক জিয়াউল হক সবুজ।