ইউনুছ আলীকে ৩ মাসের অব্যাহতি, ২৫ হাজার টাকা জরিমানা

সাইদুর রহমান মিন্টু
বিজ্ঞাপন

ডেস্ক রিপোর্ট,

ভার্চুয়াল আদালত পরিচালনা নিয়ে ফেসবুকে কটাক্ষ করে স্ট্যাটাস দেওয়ায় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইউনুছ আলী আকন্দকে দোষী সাব্যস্ত করে তিন মাসের জন্য আইন পেশা থেকে বরখাস্ত করেছেন আপিল বিভাগ। সেইসঙ্গে তাঁকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা, অনাদায়ে তাঁকে ১৫ দিনের জেল খাটতে হবে।

প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন বৃহত্তর আপিল বেঞ্চ আজ সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে এই আদেশ দেন।

এর আগে ভার্চুয়াল আদালত নিয়ে ফেসবুকে বিরূপ স্ট্যাটাস দেওয়ার ঘটনায় গতকাল রোববার শুনানি শেষে ইউনুছ আলী আকন্দের বিরুদ্ধে রায়ের জন্য আজকের দিন ধার্য করা হয়। গতকাল আদালতে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছিলেন ইউনুছ আলী। কিন্তু আদালত তাঁর ক্ষমা প্রার্থনার আবেদন গ্রহণ করেননি।

আপিল বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ফেসবুক পোস্টকে কেন্দ্র করে এই প্রথম কোনো আইনজীবীকে সাজা দিলেন আপিল বিভাগ।

গত ২৭ সেপ্টেম্বর ভার্চুয়াল আদালত নিয়ে ফেসবুকে বিরূপ স্ট্যাটাস দেওয়ায় অ্যাডভোকেট ইউনুছ আলী আকন্দকে সুপ্রিম কোর্টের আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে আইনজীবী হিসেবে প্র্যাকটিস করা থেকে অব্যাহতি দিয়েছিলেন আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে তাঁকে আদালতে হাজির হতে নির্দেশ দিয়েছিলেন আদালত।

পাশাপাশি তাঁর স্ট্যাটাসটি ফেসবুক থেকে মুছে দিয়ে অ্যাকাউন্ট ব্লক করে দিতে বিটিআরসিকে নির্দেশ দেন আদালত।

ওই আইনজীবীর স্ট্যাটাস আদালতের নজরে আনার পর প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। স্ট্যাটাসটি আদালতের নজরে আনেন অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা।

googel
বিজ্ঞাপন