কুমিল্লায় বিএনপির সভায় আকস্মিক উপস্থিত হয়ে নৌকায় ভোট চাইল চেয়ারম্যান প্রার্থী

আসন্ন দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মেজর (অব.) মোহাম্মদ আলী, বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নিয়ে মতবিনিময় সভা চলাকালে আকস্মিকভাবে উপস্থিত হয়ে নৌকার পক্ষে ভোট চেয়েছেন। এমন ঘটনা এরআগে দাউদকান্দিতে দেখা যায়নি।

মঙ্গলবার (০৬ অক্টোবর) দুপুরে সাবেক মন্ত্রী ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনের দাউদকান্দি বাসভবনে, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখো বিএনপির নেতাকর্মীদের নিয়ে মতবিনিময় চলাকালে মেজর মোহাম্মদ আলী আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের নিয়ে উক্ত মতবিনিময়ে উপস্থিত হন এবং বিনয়ের সঙ্গে নৌকার পক্ষে ভোট চান। এতে অবাক হন বিএনপির নেতাকর্মীসহ সকলে। মেজর মোহাম্মদ এমন আচরণে খুশি হন সবাই।

উল্লেখ্য, আসন্ন উপজেলা নির্বাচনকে ঘিরে বাংলাদেশের দুটি বড রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ ও বিএনপির উপজেলা প্রার্থী এবং নেতাকর্মীদের মাঝে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনা বিরাজ করছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেসের উপস্থিতিতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মোহাম্মদ আলী নৌকার পক্ষে ভোট চেয়ে বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি প্রাচীণ দল, দেশের স্বাধীনতা ও উন্নয়ন এবং সকল কর্মকান্ডে দেশকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। এর ধারাবাহিকতায় এদেশের সকল উন্নয়নের রূপকারও আওয়ামী লীগ সরকার। সকলকে আমি বিনীত অনুরোধ জানাই, আগামী ২০ শে অক্টোবর নির্বাচনে আমাকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখবেন। এবং দলীয় প্রভাবকে বিচার না করে জনগণের রায় একটি সুষ্ঠু অবাধ নির্বাচন করে আমরা বাংলাদেশের কাছে দাউদকান্দি উপজেলাকে একটি রোল মডেল হিসেবে উপস্থাপন করতে চাই।

এসময় উপস্থিত নেতৃবৃন্দ দের উদ্দেশ্যে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, নৌকার প্রার্থী মোহাম্মদ আলী এখানে উপস্থিত হয়ে অহিংস রাজনীতির সূচনা করল। সে একজন বিচক্ষণ এবং তরুণ রাজনীতিবিদ। আমি তার জন্য দোয়া করি। কিন্তু বিএনপি একটি সুসংগঠিত রাজনৈতিক দল এই দলের প্রার্থীকে ছোট করে দেখার কোন অবকাশ নেই। আমরা বিশ্বাস করি আসন্ন নির্বাচন দল-মত-নির্বিশেষে সুষ্ঠু এবং অবাধ হবে।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বিএনপি সমর্থিত ধানের শীষের উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী সাইফুল আলম ভূঁইয়া বলেন, আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আমাকে সবাই ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করবেন। আশা করি এ নির্বাচন অবাধ এবং সুষ্ঠু হবে।
নৌকার প্রচারণাকালে মেজর মোহাম্মদ আলী সাথে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগ সহযোগী অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।