মালদ্বীপ প্রবাসী মো. বাবুল হোসেন এর জন্মদিন পালন

0
229

বাসী হিসেবে শুধু দেশে রেমিটেন্স প্রেরণে নয় সফল বিনিয়োগকারী হিসেবেও আমাদের পরিচিতি এবং অবস্থান শক্তিশালী করতে যথেষ্ট ভুমিকায় রয়েছে বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রবাসীরা। তেমনই একজন লক্ষ্য অর্জনে সফল বাংলাদেশী ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ঢাকা ট্রেডার্সের কর্ণধার মো. বাবুল হোসেন, দেশ তথা পুরো মালদ্বীপে প্রবাসী বাংলাদেশীদের কাছে হয়ে উঠেছেন একজন পরিচিত মুখ। প্রবাস জীবনে তিনি চ্যালেঞ্জের সাথে বিশ্বাস করেন পরিশ্রমেও। শ্রম ও অধ্যবসায় তাকে এনে দিয়েছে ৪৭’তম বছরের নতুন অধ্যায়ের আরও একটি সাফল্যে। সেই সাফল্যের পথচলা আরেক বাংলাদেশী সফল ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ফোর এল ইন্টারন্যাশনাল এর কর্ণধার মো. হাদিউল ইসলাম এর উদ্যোগে পালিত হয় বাবুল হোসেন এর সাফল্য গাঁথা ৪৭’তম জন্মদিন।

অত্যন্ত জাঁকজমক ও আনন্দঘন পরিবেশে স্থানীয় সময় রাত ১২টা এক মিনিটে রাজধানী মালের KFC-র ফুড সেন্টারে জন্মদিনের এই উৎসবমুখর পরিবেশে স্থানীয় সামাজিক, রাজনৈতিক এবং সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ উল্ল্যেখযোগ্য সংখ্যক প্রবাসীদের পদচারণায় মুখরিত হয় পুরো হলরুম। সাথে স্থানীয় মালদিভিয়ানদের সরব উপস্থিতি অনুষ্ঠানে ভিন্নমাত্রা যোগ হয়। প্রবাসীদের স্বতস্ফুর্ত উপস্থিতি সরগরম হয়ে উঠে গোটা KFC-র হল। আড্ডা আর গল্পে গল্পে জন্মদিনের অনুষ্ঠানটি শেষ পর্যন্ত বাঙালির মিলনমেলায় পরিনত হয়।

জন্মদিনের অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মালদ্বীপ বিএনপির সভাপতি মো.খলিলুর রহমান, মালদ্বীপ আওয়ামিলীগের সহ-সভাপতি শাহজালাল শিকদার, যুগ্ম-সম্পাদক ও ফুড এন্ড ফুডসের সিও মো. নুরে আলম রিন্টু, মালদ্বীপ বিএনপির সাধারন সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম, সিনিয়র যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও ব্যবসায়ী মো. শরিফুল ইসলাম, ব্যবসায়ী ও রাজনীতিবিদ রুহুল আমিন, মো. এরশাদ উল্লাহ, মো. আরিফুল ইসলাম, মো. হাসান ইমাম, শফিকুল ইসলাম ও মো. রাহাদ। এছাড়াও উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মালদ্বীপ বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক রবিউল আলম ও হালিম ভুঁইয়া, মালদ্বীপ যুবলীগের সদস্য সচিব মো. বিল্লাল হোসেন, প্রবাসী অধিকার পরিষদের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মো. দুলাল আল মাইজভান্ডারি, মো. নিজাম উদ্দিন রাজু, করিম রানা, খায়রুল আমিন প্রদান, এনামুল হক, মজনু মিয়া সহ প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার স্থানীয় প্রতিনিধি বৃন্দ।

বাবুল হোসেন তার নিজের জন্মদিনে প্রবাসীদের নিয়ে এমন একটি আয়োজন করায় হাদিউল ইসলাম’কে ধন্যবাদ জানিয়ে তার প্রবাস বান্ধবের প্রশংসা করেন এবং উপস্থিত সকলের সাফল্য কামনায় ভবিষ্যতে সাথে থাকার আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। নৈশভোজ শেষে এক বৃহৎ আকারের জন্মদিনের কেক কাটার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয়।