স্পিকারের সাথে চীনের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

0
81
স্পিকারের সাথে চীনের রাষ্ট্রদূতের সৌজন্য সাক্ষাৎ

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সাথে আজ বৃহস্পতিবার ঢাকায় নিযুক্ত চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

সাক্ষাৎকালে তারা বাংলাদেশ-চীন বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, বঙ্গবন্ধুর চীন সফর, সংসদীয় কূটনীতি, বাংলাদেশের চলমান উন্নয়ন, কোভিড পরিস্থিতি থেকে উত্তরণ, দু’দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার প্রভৃতি বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

স্পিকার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৫২ সালে চীন সফর করেছিলেন এবং চীনের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, নারীর ক্ষমতায়ন ইত্যাদি অনুসরণীয় বিষয় তিনি পুস্তকাকারে লিপিবদ্ধ করেন। কোভিড পরিস্থিতিতে চীন বিনামূল্যে বাংলাদেশে ভ্যাক্সিন সরবরাহ করে যা দুই দেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক প্রমাণ করে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্ব ও সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণের কারণে বাংলাদেশের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের দৈনন্দিন জীবনযাপন সুরক্ষিত রয়েছে। রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বজায় রাখার পাশাপাশি নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মাণ, দারিদ্র্য নিরসন, টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা অর্জন, জনসাধারণের দৈনন্দিন জীবন স্বাভাবিক রাখা, ব্যবসায়ীদের জন্য ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ বজায় রাখা, অর্থনৈতিক অঞ্চল নির্মাণ, সর্বোপরি ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত বাংলাদেশ নির্মাণে প্রধানমন্ত্রী নিরলস কাজ করে যাচ্ছেন।

এসময় চীনকে বাংলাদেশে আরো বেশি বিনিয়োগ করার আহ্বান জানান স্পিকার।

বাংলাদেশের স্থিতিশীল আর্থ-সামাজিক পরিস্থিতি, চলমান উন্নয়ন ও সংসদীয় গনতন্ত্রের প্রশংসা করে রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেন, বাংলাদেশ চীনের অকৃত্রিম বন্ধু। বাংলাদেশের মানুষ অত্যন্ত অতিথিপরায়ণ। এসময় পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এসময় সংসদ সচিবালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।