প্রেমের টানে বাংলাদেশ থেকে ভারতে গিয়ে প্রতারিত তরুণী

0
103
প্রেমের টানে বাংলাদেশ থেকে ভারতে গিয়ে প্রতারিত তরুণী

প্রেমের টানে বাংলাদেশ থেকে ভারতে গিয়ে প্রতারিত এক তরুণী। ন্যায়বিচার চেয়ে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছেন বাংলাদেশের শরীয়তপুরের বাসিন্দা সোনিয়া খাতুন।

নির্যাতিত তরুণী জানান, গত দুই বছর আগে তার সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় আলাপ হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবার থানার চাঁদা গ্রামের বাসিন্দা রহমাতুল্লাহ মল্লিক নামে এক যুবকের। প্রেমের টানে বাংলাদেশ থেকে তিনি চলে যান ভারতে।

পরে রহমাতুল্লাহর সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ওই তরুণী। বিয়ের পর তিনি জানতে পারেন, তার স্বামী আগে থেকেই বিবাহিত ছিলেন। তবে রহমাতুল্লাহ জানান, তার প্রথম পক্ষের স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্স হয়ে গেছে।

বিয়ের পর এক সন্তানের জন্ম দেন সোনিয়া। বিপত্তি ঘটে গত কয়েক মাস আগে। নির্যাতিত বাংলাদেশি তরুণীর অভিযোগ, তার স্বামীর বিবাহবহির্ভূত একাধিক সম্পর্ক রয়েছে। এ নিয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে তাকে বেধড়ক মারধর করেন স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজন। এমনকি বাড়ি থেকে বের করে দেয়া হয় তাকে।

এরপরই ন্যায়বিচারের আশায় প্রশাসনের দ্বারস্থ হন ওই তরুণী। গত ২৯ অক্টোবর স্বামীসহ শ্বশুরবাড়ির লোকজনের বিরুদ্ধে ডায়মন্ডহারবার থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। এখন শ্বশুরবাড়ি থেকে বিতাড়িত সোনিয়া। এই মুহূর্তে ন্যায়বিচারের আশায় প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তিনি।