নামাজ নিয়ে মন্তব করায় ক্ষমা চাইলেন ওয়াকার

অনলাইন ডেস্ক

0
355

 

 

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের রেশ যেন কাটতেই চাইছে না। মাঠে যারা খেললেন, তাদের কাজ শেষ হয়ে গেছে ম্যাচের পর। কিন্তু টি-২০ বিশ্বকাপের ওই ম্যাচের পর থেকে দুই দেশের ক্রিকেটাররা যেন একের পর এক বিতর্ক তৈরি করছেন। এ ক্ষেত্রে অনেকটাই এগিয়ে রয়েছে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা। ধর্মীয় মন্তব্য করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছিলেন ওয়াকার ইউনুস। একদিন পর তিনি আবার নিঃশর্ত ক্ষমাও চেয়ে নিলেন।

ভারতের বিরুদ্ধে ম্য়াচে পানি পানের বিরতিতে নামাজ মাঠেই পড়েছিলেন ওপেনার মোহম্মদ রিজওয়ান। পরদিন যখন পাকিস্তানের একটি টিভি চ্যানেলে ম্যাচ নিয়ে বিশ্লেষণ করতে বসেছিলেন ওয়াকার, তখন হঠাৎই বলে বসেন, ভারতের হিন্দু সমর্থকদের সামনে রিজওয়ানে নামাজ পড়া তার অত্যন্ত ভালো লেগেছে। যা শুনে পাকিস্তানের হিন্দুদের মতো ভারতের হিন্দুদের ভাবাবেগে আঘাত লেগেছে। শুধু তাই নয়, ধর্মনিরপেক্ষ মানুষরাও সাবেক পাকিস্তানি অধিনায়কের মন্তব্যে আহত হয়েছেন।

ওয়াকার টুইটারে লিখেছেন, উত্তেজনার বশে আমি ওই মন্তব্য করে বসেছিলাম। যেটা আমি বলেছি, সেটা আসলে বলতে চাইনি। কোনও ভাবেই কারও ধর্মীয় আবেগে আঘাত করতে চাইনি। আমি যা বলেছি, তার জন্য ক্ষমা চাইছি। আমার কথা অর্থ ওটা ছিল না। নিঃসন্দেহে আমি ভুল করেছি। খেলা যে কোনও লড়াই, রং, ধর্মের ঊর্ধ্বে উঠে মানুষকে মেলায়।

ওয়াকারের এই মন্তব্যের পর ভারতের এক সময়ের সাবেক টেস্ট ওপেনার ওয়াসিম জাফর টুইটারে লেখেন, অত্যন্ত জঘন্য একটা মন্তব্য করেছে ওয়াকার ইউনিস।

ধারাভাষ্যকার হর্ষ ভোগলে লেখেন, ওয়াকার ইউনুসের মতো কোনও ক্রিকেটারের কাছ থেকে যখন শুনি, হিন্দুদের সামনে রিজওয়ানের নামাজ পড়া অত্যন্ত সুখদায়ক দৃশ্য, তখন খুব খারাপ লাগে শুনতে। আমরা অনেকেই চেষ্টা করি যাতে এইরকম ব্যাপার চেপে রাখা যায়। তার পরও যখন শুনি, ধংস্বাত্মক মনে হয়