ঢাকা মেডিকেলে নেয়া হয়েছে ভিপি নূরকে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নূর পুলিশের হাতে আটকের পর ঢাকা মেডিকেল কলেজে (ঢামেক) চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (ইন্সপেক্টর) বাচ্চু মিয়া বলেন, ডিবি পুলিশ নুরুল হক নুর ও সোহরাব হোসেনসহ দুজনকে চিকিৎসার জন্য নিয়ে এসেছে।

এর আগে নূরসহ সাতজনকে আটক করে পুলিশ।

ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহবুব আলম নূরসহ সাতজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানান।

সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর মৎস ভবন থেকে নূরসহ কয়েকজনকে বিক্ষোভ মিছিল থেকে বিশৃঙ্খলা চেষ্টার অভিযোগে আটক করা হয়। এরপর তাদের ডিবি অফিসে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়।

ডিবি পুলিশ এরপর সাবেক ভিপি নুরুল হক নূর ও সোহরাব হোসেন নামে দুজনকে চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেলের জরুরি বিভাগে নিয়ে যার। জরুরী বিভাগে চিকিৎসা চলছে তাদের।

রোববার রাতে নূরসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের একটি মামলা হয়। এর প্রতিবাদে সোমবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ সমাবেশ করে ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ। তাদের বিক্ষোভ মিছিলটি মৎস ভবন এলাকায় গেলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় বলে জানা গেছে।

সেখান থেকে নুরসহ কয়েকজনকে আটক করা হয়।

এ বিষয়ে তাৎক্ষণিক পুলিশের একটি সূত্র জানায়, সংঘর্ষে পুলিশের কয়েকজন সদস্য আহত হয়েছেন। আনুষ্ঠানিকভাব এ বিষয়ে পরে জানানো হবে।

ডিএমপির উপকমিশনার ওয়ালিদ হেসেন বলেন, পুলিশের কাজে বাধা দেওয়া এবং পুলিশকে মারধর করার অভিযোগে তাদের আটক করা হয়েছে।

টিএসসি থেকে মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় মৎস্য ভবন এলাকায় পুলিশের সঙ্গে গোলযোগ বাঁধে নূরের সংগঠন সাধারণ শিক্ষার্থী অধিকার পরিষদের।

ধর্ষণের ওই মামলার আসামিরা হলেন হাসান আল মামুন, নাজমুল হাসান, নুরুল হক নূর, মো. সাইফুল ইসলাম, নাজমুল হুদা ও আবদুল্লাহ হিল বাকি। এদের মধ্যে হাসান আল মামুন ও নূরের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগ আনা হয়েছে।

googel [ecwid widgets="productbrowser categories" default_category_id="0" default_product_id="0" minicart_layout="MiniAttachToProductBrowser"]