চিৎকার করে গান গাইলে বাড়ে করোনার ঝুঁকি!✍

অভিনেত্রী সানি লিওনি। প্রতীকী ছবি
Add your HTML code here...
DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

✍ ডেস্ক রিপোর্ট
বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই ২ কোটি ৮০ লক্ষ ছাড়িয়েছে। এই ভাইরাসে এখনও পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ৯ লক্ষ ৮ হাজার ৪৩৪ জনের। প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে করোনা নিয়ে নতুন আশঙ্কার কথা শোনালেন একদল বিজ্ঞানী। তাদের দাবি, জোরে, চিৎকার করে গান গাওয়াও করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিতে পারে!

সম্প্রতি সুইডেনের লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানিয়েছেন, জোরে, চিৎকার করে গান গাওয়ার সময় মুখ থেকে অধিক পরিমাণ বাষ্প নির্গত হয় যা আশেপাশের বাতাসের সঙ্গে মিশে ছড়িয়ে পড়ে। এতেই করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায় বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

এই তথ্য প্রকাশের আগে একটি সমীক্ষা করে দেখেন লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা। এই সমীক্ষার জন্য ১২ জন কণ্ঠশিল্পীকে বেছে নিয়েছিলেন তারা। এই ১২ জন কণ্ঠশিল্পীর মধ্যে ৮ জন অপেরা শিল্পী।

জানা গিয়েছে, নির্বাচিত শিল্পীদের মধ্যে দু’জন করোনা আক্রান্ত ছিলেন। সমস্ত রকম সুরক্ষা ব্যবস্থা নেয়ার পর এই ১২ জন কণ্ঠশিল্পীকে গান গাইতে বলা হয়।

বিশেষজ্ঞরা দেখেছেন, শিল্পীর যখন উচ্চ কণ্ঠে গান গাইছেন তখন তার মুখ থেকে অতিরিক্ত বাষ্পকণা নির্গত হচ্ছে যা আশেপাশের বাতাসে ছড়িয়ে পড়ছে। গবেষকরা দেখেন, নিচু স্বরে গান গাইলে এমনটা হচ্ছে না।

তাহলে কি চিৎকার করে গান গাইলে বা কথা বললে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি বেড়ে যায়? লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা জানিয়েছেন, মুখ যদি মাস্কে ঢাকা থাকে, তাহলে সংক্রমণের ঝুঁকি কম বা নেই বললেই চলে। তবে পর্যাপ্ত দূরত্ব বজায় রাখতে পারলে করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি অনেকটাই এড়িয়ে চলা সম্ভব। সূত্র: জি নিউজ।