নাজিব রাজাকের স্ত্রী রোজমাহকে ৬৫ লাখ রিঙ্গিত ঘুষ দেয়ার কথা জানালেন মানসুর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের স্ত্রী রোজমাহ’কে ৬৫ লাখ রিঙ্গিত ঘুষ দেয়া হয়েছিল বলে আদালতে স্বীকারোক্তি দিয়েছেন সাবেক একজন সহযোগী।

তার নাম রিজাল মানসুর। তিনি বলেছেন, নাজিব রাজাক যখন প্রধানমন্ত্রী তখন জিপাক হোল্ডিং এসডিএন বিএইচডি-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ আবাং সামুদ্দিনের পক্ষ থেকে দুই দফায় তিনি ওই অর্থ পৌঁছে দিয়েছেন রোজমাহ’র কাছে। এর উদ্দেশ্য ছিল সরকারের কাছ থেকে ১২৫ কোটি রিঙ্গিতের একটি সোলার হাইব্রিড প্রকল্পের কাজ বাগিয়ে নেয়া।

রিজাল মানসুর আরো বলেছেন, এই অর্থের মধ্যে ২০১৬ সালের ডিসেম্বরের দিকে পুত্রজয়ায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন সেরি পারদানায় রোজমাহ’কে দেয়া হয়েছে ৫০ লাখ রিঙ্গিত। তিনি আদালতে আরো বলেন, ওই অর্থ রোজমাহ’র কাছে পৌঁছে দেয়ার সময় তার সঙ্গে ছিলেন তার গাড়ির চালক ও একজন বন্ধু আহমেদ ফারিক জয়নুল আবিদিন। এ খবর দিয়েছে অনলাইন মালয় মেইল।

মানসুর বলেন, আমরা সেরি পারদানা কমপ্লেক্সে পৌঁছার সঙ্গে সঙ্গে আমাকে নির্দেশ দেয়া হয়েছিল সঙ্গে থাকা লাগেজ ব্যাগ দু’টি দু’জন বাটলারের মাধ্যমে রোজমাহর কাছে পৌঁছে দেয়া। এই দুটি ব্যাগে ছিল ৫০ লাখ রিঙ্গিত।
রোজমাহ’র বাসার ভিতরে আমার গাড়িতে রাখা ছিল ওই অর্থ। আমি বাসার ভিতরে প্রবেশ করি। গাড়িতে শুধু তখন অবস্থান করছিলেন ফারিক ও আমার গাড়ির চালক।

তিনি বলেন, এরপর ওই দুটি লাগেজ বুঝে পাওয়ার পর আমি রোজমাহ’র সঙ্গে সাক্ষাত করি। এ সময় তিনি জানতে চান- এতে কত আছে? জবাবে আমি তাকে বলি ‘পাঁচ’ অর্থাৎ ৫০ লাখ রিঙ্গিত বা ৫ মিলিয়ন রিঙ্গিত। এ অবস্থায় ওই দুটি লাগেজ খুলে দেখলেন না তিনি। বাটলারদের নির্দেশ দিলেন এগুলো তার রুমে রেখে আসতে। এরপরই আমি সেখান থেকে বেরিয়ে আসি।