উয়েফা ন্যাশন্স লিগ রোনালদোর সেঞ্চুরি, পর্তুগালের জয়

Add your HTML code here...

✍ খেলাদুলা ডেস্ক,

উয়েফা ন্যাশন্স লিগের দ্বিতীয় আসরে সুইডেনের বিপক্ষে গোল করে ইতিহাসের দ্বিতীয় খেলোয়াড় হিসেবে আন্তর্জাতিক ফুটবলে গোলের সেঞ্চুরি পূরণ করলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। রেকর্ড করেই থেমে যাননি এই পর্তুগিজ সুপারস্টার, আরো একটি গোল করে দলকে জয় এনেও দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (৮ সেপ্টেম্বর) রাতে ন্যাশন্স লিগে ৩ নম্বর গ্রুপের নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে রোনালদোর জোড়া গোলে সুইডেনকে ২-০ গোলে হারিয়েছে পর্তুগাল।

ম্যাচের প্রথমার্ধ থেকে সুইডেনের রক্ষণভাগে অনেকবার হানা দিলেও লক্ষ্যভেদ করতে পারছিল না পর্তুগাল। তখন যেন তাদের উদ্ধারকর্তা হিসেবে আবির্ভূত হন সুইডিশ মিডফিল্ডার গুস্তাভ বেনসন। ম্যাচের ৪৪ মিনিটের সময় ডি-বক্সের বাইরেই পেছন থেকে তিনি ফাউল করেন হোয়াও মৌতিনহোকে। দ্বিতীয় হলুদ কার্ডের কারণে মাঠ ছাড়তে হয় তাকে, ফ্রি-কিক পায় পর্তুগাল।

লক্ষ্য থেকে প্রায় ২৫ গজ দূরে পাওয়া এই ফ্রি-কিকটিকেই নিজের সেঞ্চুরির যথাযথ সুযোগ হিসেবে আকড়ে ধরেন রোনালদো। রক্ষণ-প্রাচীরের ওপর দিয়ে বাঁকানো ফ্রি-কিকটি সোজা জড়িয়ে যায় জালে। যা আন্তর্জাতিক ফুটবলে রোনালদোর শততম গোল। তার আগে এই কীর্তি করতে পেরেছেন শুধুমাত্র ইরানের আলি দাই।
এক গোল করেই দমে যাওয়ার ছিলেন রোনালদো। তার মধ্যে যে গোলের ক্ষুধা এখনো আগের মতোই, সেটি প্রমাণ করেছেন দ্বিতীয়ার্ধেও। যথারীতি এই অর্ধেও গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেছেন অন্যান্যরা।
তবে ৭২ মিনিটের সময় ডি-বক্সের মুখ থেকে কোনাকুনি শটে ম্যাচের ও নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন পর্তুগিজ সুপারস্টার। এ দুই গোলেই বিজয়ীর হাসি নিয়ে মাঠ ছাড়ে ন্যাশন্স লিগের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।
আন্তর্জাতিক গোলের সেঞ্চুরির জন্য ৩৫ বছর বয়সী রোনালদোর অপেক্ষাটা অবশ্য বেশ দীর্ঘ ছিল। ৯৯তম গোলের পর দীর্ঘ ১০ মাস অপেক্ষায় ছিলেন। করোনাভাইরাসের কারণে আন্তর্জাতিক সূচি পিছিয়ে যাওয়ায় বাড়তে থাকে রোনালদোর এই সেঞ্চুরির অপেক্ষা। তার আগে এই কীর্তি রয়েছে শুধুমাত্র ইরানের আলি দাইয়ের (১০৯ গোল)।
শততম গোলটি করতে ১৬৫ ম্যাচ খেলতে হয়েছে রোনালদোকে। রোনালদো ৯৯তম গোলটি করেছিলেন ২০১৯ সালের নভেম্বরে লাক্সেমবার্গের বিপক্ষে।
টানা দুই জয়ে উয়েফা ন্যাশন্স লিগের শিরোপা ধরে রাখার পথে ভালোভাবেই এগুচ্ছে টুর্নামেন্টের বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। গ্রুপে ফ্রান্স, ক্রোয়েশিয়া ও সুইডেনের মতো দল থাকায় আপাতদৃষ্টিতে এটিই টুর্নামেন্টের ডেথ গ্রুপ।
এই গ্রুপে খেলেই দুই ম্যাচে মোট ৬ গোল করে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে অবস্থান করছে ফার্নান্দো সান্তোসের শিষ্যরা।