কঙ্গনার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগ

কঙ্গনা রানাউয়াতের বিরুদ্ধে গুরুগ্রামে দায়ের হল দেশদ্রোহের মামলা। গুরুগ্রামের ৩৭ সেক্টর থানায় ভীমসেনার প্রধান সতপাল তনওয়ার এই অভিযোগ দায়ের করেছেন। তার অভিযোগ, কঙ্গনা টুইট করে সংবিধানের অপমান করেছেন। অভিনেত্রী জাতি বৈষম্য নিয়ে টুইট করার পর, সেটি টুইটারে লাখ লাখ ট্রেন্ড করেছে। সে কারণেই কঙ্গনার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগ আনা হল বলে জানিয়েছেন সতপাল।

ভীমসেনার প্রধান সতপাল তনওয়ারের অভিযোগ, ভারতীয় সংবিধানকে জাতিবাদী বলে মানুষকে তিনি উস্কানি দিচ্ছেন। তাই অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সাইবার থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে বলে জানান সতপাল তনওয়ার।

কঙ্গনা টুইট করেছিলেন, আধুনিক ভারতীয়রা জাতী ব্যবস্থাকে অস্বীকার করেন। ছোট শহরের লোকজন জানেন এটি আইনত গ্রহণযোগ্য নয়। কিছু লোক বিশ্বাস করেন, এটি অন্যকে দুঃখ দিয়ে আনন্দ পাওয়া আর ছাড়া কিছুই নয়। আমাদের সংবিধানেই শুধু সংরক্ষণের কথা আছে। চলুন এটা নিয়ে কথা বলা যাক।

কঙ্গনার এই টুইটের পরেই তার সমর্থনে কিছু লোকজন মুখ খুলেন। বলেন, আমরা কঙ্গনার পাশে আছি। আবার কিছু লোকজন কঙ্গনার বিরুদ্ধে মুখ খুলেন। সবমিলিয়ে কঙ্গনার টুইট টুইটারে ট্রেন্ড করা শুরু করে দেয়।

কঙ্গনার এই টুইট টুইটারে ট্রেন্ড করার পরই তার বিরুদ্ধে দেশদ্রোহের অভিযোগ এনেছেন সতপাল তনওয়ার। যদিও এই সতপাল তনওয়ারের বিরুদ্ধেও ব্ল্যাকমেইল করার অভিযোগ উঠেছিল বহুবার