ফেসবুক লাইক, বুস্টের নামে প্রতারণার ফাঁদ!

DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

১০ হাজার ফেসবুক লাইক মাত্র ১৬৫০ টাকা। ফেসবুকে এমন অবাস্তব বিজ্ঞাপন প্রচার করছে একটি ফেসবুক পেইজ। বিজ্ঞাপনটি দেখে পেইজ লাইকের জন্য তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন আবীর হোসেন নামের এক ক্ষুদ্র বিক্রেতা। পেইজটির এডমিন ইমতিয়াজ হোসেন জানান, তারা ৫ দিনে ১০ হাজার লাইক করে দেবেন। তবে পুরো টাকা অ্যাডভান্স বিকাশ করতে হবে।

আবীর হোসেন প্রস্তাব দেন- তিনি অর্ধেক টাকা আগে দেবেন এবং ৫ হাজার লাইক পাওয়ার পর বাকি বাকি টাকা দেবেন। আবীরের প্রস্তাবে রাজি হন পেইজটির অ্যাডমিন ইমতিয়াজ। এরপর ইমতিয়াজের দেয়া নাম্বারে ৮০০ টাকা বিকাশ করেন আবীর। কিন্তু বিকাশ পাওয়ার পরই বদলে যায় ইমতিয়াজের ব্যবহার। তিনি জানান, পুরো টাকা না দিলে বিজ্ঞাপন দেওয়া হবে না। প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে আবীর তার ৮০০ টাকা ফেরত চাইলে ইমতিয়াজ জানান, ‘অ্যাডভান্স দিয়ে অ্যাড স্ট্যার্ট করা হয়েছে, বাকি টাকা দিলে লাইক আসা শুরু হবে।’ এরপর আবীরের সঙ্গে সমস্ত যোগাযোগ বন্ধ করে দেন ইমতিয়াজ।

শুধু এই পেইজ নয়, ফেসবুক লাইক আর বুস্টের নামে ফেসবুকে প্রতারণা করে যাচ্ছে বেশ কয়েকটি ফেসবুক পেইজ। ক্রেতা সেজে আরও একটি পেইজের এডমিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আপনাকে আপনার পেইজে কাঙ্খিত লাইক এনে দেওয়া হবে। সেক্ষেত্রে বিজ্ঞাপনের ফিচার ইমেজ হিসেবে বিশেষ নায়িকার খোলামেলা ছবি বা ধর্মীয় কোন বিষয় যুক্ত করে দেওয়া হবে। সবাই নায়িকার খোলামেলা ছবি দেখার জন্য লাইক দিলেও লাইক আপনার পেইজেই আসবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ফেসবুকে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোন নির্দেশনা না থাকায় যে কেউই এসব পেইজ খুলে লাইক বা বুস্টের নামে প্রতারণা করছে। আর সাধারণ ব্যবসায়ী বা পেইজে লাইক প্রত্যাশীরা তাদের প্রতারণায় পা দিচ্ছে। এসব প্রতারক এক একজন আবার ২০-৫০টা পেইজ নিয়ন্ত্রণ করেন। এক এক পেইজ থেকে কিছুদিন প্রতারণা শেষে অন্য একটি পেইজ থেকে আবার প্রতারণা শুরু করেন। যে কারণে এদের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ থাকার পরে ব্যবস্থা নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে।

তবে অতিসম্প্রতি এসব প্রতারকের ব্যাপারে খোঁজ খবর শুরু করেছে আইন শৃঙ্খলা বাহিনী। কেউ কেউ ডিজিটাল আইনে আটকও হচ্ছেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, সবার আগে সাধারণ মানুষকে সচেতন হতে হবে। সবাই মিলে এদের ব্যাপার সোচ্চার হলে এরা আর বেশিদিন প্রতারণা করার সুযোগ পাবে না। আর এরা যা করছে তাতে ফেসবুক যে কোন দিন বাংলাদেশে তাদের বুষ্টিং সার্ভিস বন্ধ করে দেবে। কারণ এসব প্রতারকের কারণে বাংলাদেশে বিদেশের অনেক সার্ভিসই এখন বন্ধ আছে।

ফেসবুক বুস্টিং ব্যবসায়ী ইকরামুল ইহান বলেন, যে কোন ফেসবুক পেইজে লাইক পাওয়া এখন আগের থেকে অনেক কঠিন হয়ে গেছে। আগে যেখানে বুস্টিং করলে বাংলাদেশী ১ টাকায় ৪-৫টি লাইক পাওয়া যেত এখন সেখানে ১ থেকে ১.৫টি পাওয়া যায়। যে কারণে কোন ভাবেই এখন আর ২/৩ হাজার টাকায় ১০ হাজার লাইক পাওয়া সম্ভব না। যারা এমন প্রলোভন দেখাচ্ছেন তারা নিশ্চিত করেই প্রতারণা করছেন। আবার কেউ কেউ বিজ্ঞাপনে নায়িকাদের অশ্লীল ছবি ব্যবহার করে লাইক আনার চেষ্টা করছেন। যেসব লাইক পেইজ মালিকের কোন কাজে আসে না।

তিনি বলেন, লাইকের জন্য বিজ্ঞাপন না দিয়ে পেইজে ভালো ভালো কনটেন্ট দিলে ভালো লাইক পাওয়া যায়।

বিডি প্রতিদিন