কুমিল্লায় একে একে পাঁচ শিশু সন্তানের মৃত্যু

DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

চাঁদপুরের কচুয়ায় একসঙ্গে পাঁচ সন্তান প্রসব করেছেন এক মা। তবে অপরিণত সময়ে জন্ম হওয়ায় প্রসবের পরপরই একে একে মারা যায় পাঁচটি শিশু। শনিবার (১৫ আগস্ট) রাতে কচুয়া টাওয়ার হাসপাতাল নামে বেসরকারি একটি ক্লিনিকে এ ঘটনা ঘটে। জানা গেছে, কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বরকড়ই গ্রামের কৃষক মো. ইউনুসের স্ত্রী মারুফা বেগম।

প্রসবের পরপরই তিন শিশু মারা যায়। বাকি দুই শিশু জীবিত থাকলেও রোববার (১৬ আগস্ট) সকালে একে একে তারাও মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শনিবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে প্রসবব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন মারুফা বেগম (২৫) এক প্রসূতি। প্রসূতির বর্ণনা শুনে হাসপাতালের চিকিৎসক তাকে আল্ট্রাসনোগ্রাম করান। এ সময় প্রসবব্যথা তীব্র হতে শুরু করলে মারুফা বেগমকে দ্রুত অপারেশন থিয়েটারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে স্বাভাবিকভাবে পরপর পাঁচটি সন্তান প্রসব করেন মারুফা বেগম। এরমধ্যে চারটি ছেলে এবং একটি মেয়ে সন্তান।

তবে অপরিণত হওয়ায় জন্মের অল্পে সময় পরই তিন শিশু মারা যায়। রাতেই জীবিত অন্য দুই শিশু নিয়ে হাসপাতাল ত্যাগ করেন ওই প্রসূতি মা। তবে রোববার সকালে জীবিত থাকা দুই শিশুও মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়ে।

কচুয়া টাওয়ার হাসপাতালের চিকিৎসক সিনথিয়া সাহা জানান, মূলত অপরিণত হয়ে জন্ম হওয়ায় পাঁচ শিশুই মারা গেছে।