চামড়া শিল্প ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে : মান্না

DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

সরকারের যোগসাজশে ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট চামড়া শিল্পকে ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে দাঁড় করিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

আজ মঙ্গলবার নাগরিক ঐক্যের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মান্না এসব কথা বলেন।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, চামড়া শিল্প রক্ষায় সরকার আবারো ব্যর্থতার পরিচয় দিয়েছে। গত বছর কোরবানির পশুর চামড়ার দামের বিপর্যয় সত্ত্বেও সরকার এ অবস্থা থেকে উত্তরণে কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করেনি। দাম না পেয়ে অনেককে চামড়া মাটিতে পুঁতে ফেলতে দেখা গেছে। অনেক মৌসুমি ব্যবসায়ী চামড়া কিনে ন্যায্যমূল্যে বিক্রি করতে না পারায় সর্বস্বান্ত হয়েছে। এর পেছনে কাজ করেছে একটি সংঘবদ্ধ চক্র। অথচ সরকার সেদিকে কোনো নজর দেয়নি। উপরন্তু এ বছর ঈদের কয়েকদিন আগে সরকারের পক্ষ থেকে চামড়ার দাম ২০ থেকে ২৭ শতাংশ কম মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু সেই নির্ধারিত মূল্যেও মানুষ চামড়া বিক্রি করতে পারেনি।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক আরো বলেন, গত বছরের অভিজ্ঞতার কারণে মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা এ বছর চামড়া কিনতে আগ্রহী ছিলেন না। এ বছরও চামড়া নির্ধারিত মূল্যের অর্ধেকেরও কম দামে, কোথাও কোথাও নামমাত্র মূল্যে বিক্রি হয়েছে। এমনকি এবারও অনেকে চামড়া মাটিতে পুঁতে ফেলেছেন। তিনি বলেন, এই চামড়ার টাকার সম্পূর্ণ হক দেশের গরিব মানুষের।

ডাকসুর সাবেক ভিপি মান্না বলেন, করোনা এবং বন্যায় বিপর্যস্ত দেশের নিম্নবিত্ত মানুষের দায়িত্ব নিতে সরকার ব্যর্থ হয়েছে। তার উপরে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে কোরবানির পশুর চামড়া থেকেও গরিব মানুষের হক নষ্ট করা হয়েছে।