স্বাস্থ্যবিধি মেনে নামাজ আদায়ের আহ্বান আইনমন্ত্রীর

DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ (কসবা-আখাউড়া) আসনের সংসদ সদস্য ও আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, আমার মনটা কসবা আখাউড়ায় পড়ে আছে। কথা ছিল সামনা-সামনি দেখা হবে, কথা হবে। রোজার ঈদ একসঙ্গে পালন করব, কোরবানির ঈদও সুন্দরভাবে একসঙ্গে পালন করব। কিন্তু এভাবে দেখা হবার, কথা হবার কথা ছিল না। করোনাভাইরাসের কারণে সবকিছু এলোমেলো হয়ে গেল।

তিনি এবারের ঈদেও সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের নামাজ আদায়ের আহ্বান জানান। বুধবার (২৯ জুলাই) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে স্থানীয় প্রশাসনের আয়োজিত ভার্চুয়াল কনফারেন্সে দলীয় নেতাকর্মীদের পাশাপাশি এলাকার ইমামদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, বর্তমান সময়ে বন্যায় ভাসছে সারা দেশ। কসবা, আখাউড়ার বিভিন্ন এলাকায় বন্যা দেখা দিয়েছে। বন্যায় ত্রাণ কার্যক্রম যেন যথাযথ প্রক্রিয়ায় হয় সে ব্যাপারে জনপ্রতিনিধিসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন। পাশাপাশি সামনে শোকের মাস আগস্ট। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনার জন্যে তিনি দলীয় নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান।

সভায় মন্ত্রী বলেন, আজ আমার ডাকে আপনারা একত্রিত হয়েছেন। উপস্থিত হয়েছেন। আমি আপনাদের কাছে কৃতজ্ঞ। আপনারা জানেন একটা কথা আছে মানুষ আশা করেন। আল্লাহতালা তা পূরণ করেন। আল্লাহর ইচ্ছে সব হয়। মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে দূরত্ব বজায় রাখতে হয়েছে। তিনি আক্ষেপ করে বলেন, আপনারা জানেন চলতি বছরের ১৮ এপ্রিল আমার মমতাময়ী মাকে হারিয়েছি। করোনার কারণে আমার মাকে কসবা নিয়ে আসতে পারিনি। আমার মনে বড় দু:খ আছে। ঈদের পরে আপনাদের সাথে সামনা-সামনি দেখা হবে কথা হবে আশা রাখি। আপনারা আমার জন্য দোয়া করবেন। আমার মরহুম মমতাময়ী মায়ের জন্য দোয়া করবেন। সবাই ভাল থাকবেন।

এ সময় মন্ত্রী সভায় উপস্থিত কসবা উপজেলাবাসীকে আগাম ঈদ শুভেচ্ছা জানান। কসবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাসুদ উল আলমের সভাপতিত্বে ভার্চুয়াল (ভিডিও) কনফারেন্সে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কসবা উপজেলা চেয়ারম্যান রাশেদুল কাউছার ভূঁইয়া জীবন, কসবা পৌরসভার মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েল, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. মনির হোসেন প্রমুখ।