সড়ক দু’র্ঘ’টনায় অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেলেন শাহনাজ খুশি

Add your HTML code here...
DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

বিনোদন

শুটিং থেকে ফিরতে গিয়ে ভয়ঙ্কর সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়ে অল্পের জন্য প্রাণে বাঁচলেন ছোট পর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি।
গত বৃহস্পতিবার ঈদের নাটক ‘নসু ভিলেন’-এর দৃশ্যায়নের জন্য পুবাইল যাওয়ার পথে এই দুর্ঘটনায় পড়েন বলে জানিয়েছেন খুশি। দুর্ঘটনার সময় তিনি একাই ছিলেন গাড়িতে।

১৬-১৭ বছর বয়সী এক কিশোর একটি কার্গোবাহী ট্রাক চালিয়ে তার গাড়িকে চাপা দেয় বলে জানান তিনি।
এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে শনিবার সকালে নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দুর্ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত গাড়ির ছবি পোস্ট করে স্ট্যাটাস দিয়েছেন অভিনেত্রী শাহানাজ খুশি।

তিনি লিখেছেন, ‘‌‌‌‌চার মাস পর করোনার মধ্যে প্রথম শুটিংয়ে যাচ্ছি, খারাপ লাগা নিয়ে পরশু এমন একটা পোস্ট দিয়েছিলাম। নাহ, আমাকে অদৃশ্য করোনা এখনো ছোঁয়নি, আমাকে মৃত্যুর দুয়ারে নিয়েছিল! এই গাড়ির মধ্যে আমি ছিলাম! একেবারেই অলৌকিক কিছু না হলে আমার বাঁচার কথা নয়! আমি এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না যে আমি বেঁচে আছি, ভালো আছি!’

খুশি আরও লেখেন, ‌কত বড় অরাজকতার মধ্যে আমরা বাস করছি, তা ভুক্তভোগী সবাই জানি। আজ স্বাস্থ্যখাত সামনে এসেছে বলে সাহেদদের মতো অসংখ্য অসংখ্য কালপ্রিট সামনে আসছে, পরিবহন খাতটা দীর্ঘকাল হলোই এমন! প্রতিদিন এমন অসংখ্য দুর্ঘটনায় শেষ হচ্ছে হাজারো পরিবার, খালি হচ্ছে মায়ের কোল, সন্তানের বুক! কিন্তু কোন প্রতিকার নেই। স্বাস্থ্যখাতের চেয়েও আরও দুর্গম, অন্ধকার, অন্যায়ে ঠাসা এ পরিবহনখাত!’

ঘাতক ট্রাক ড্রাইভারের প্রসঙ্গে খুশি লেখেন, ‘গুরুত্বপুর্ণ কথা হলো, ওনার কোনো লাইসেন্স নাই। এমন নাকি চলে, কোন সমস্যা হয় না। আমি আসলে পুরো সেন্সে ছিলাম না, কিছু কিছু কথা আমি ভুলতে পারছি না। পুবাইল পুলিশ, শুটিংয়ের ছেলেরা, আমার বাসার মানুষ সবাই চলে এসেছে। আমি তখন থরকম্প একটা মাংসপিন্ড কেবল। কেউ একজন ক্ষতিপুরণের কথা বলায় ড্রাইভার বলছে, মানুষ মাইরালায় ট্যাহা লাগে না, বাঁইচ্যা আছে, তাও ট্যাহা লাগব!’