হজের সুযোগ পাচ্ছেন ১০ হাজার মানুষ

DSLR Cameras/ https://amzn.to/2P4hlHWCanon EOS Rebel T7 DSLR Camera with 18-55mm Lens | Built-in Wi-Fi|24.1 MP CMOS Sensor | |DIGIC 4+ Image Processor and Full HD Videos$359.99এই ক্যামেরা টি কিন্তে এখানে কিল্ক করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : হজের আর বেশি দিন বাকি নেই। ইলেক্ট্রনিক্স পদ্ধতিতে এবার হজে অংশগ্রহণকারীদের নিবন্ধন গ্রহণ করেছে সৌদির হজ কর্তৃপক্ষ। আবেদনের তথ্য মতে জানা যায়, সৌদিতে বসবাসকারী ১৬০ দেশের মানুষের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হবে এবারের হজ। এতে সুযোগ পাচ্ছেন ১০ হাজার ধর্মপ্রাণ মুমিন মুসলমান।

গণমাধ্যম সৌদি গেজেট, গলফ নিউজের তথ্য মতে, এ বছর সৌদিতে বসবাসরত ১৬০ দেশের মুসলিম নাগরিকরা হজে অংশগ্রহণ করবে। এতে বিদেশিদের মধ্য থেকে ৭০ শতাংশ লোক হজে অংশগ্রহণ করবে। আর সৌদির স্থানীয়দের মধ্য থেকে ৩০ শতাংশ লোক হজে অংশ নেবে। সব মিলিয়ে সর্বোচ্চ ১০ হাজার মানুষ এবারের হজে অংশগ্রহণের সুযোগ পাবে। তবে বাইরের কোনো দেশ থেকে হজ উপলক্ষে কেউ সৌদিতে আসার সুযোগ পাবে না।

ব্যাপক নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যবিধি মেনেই এবারের হজ অনুষ্ঠিত হবে। ইতিমধ্যে একাধিক ঘোষণার মাধ্যমে হজে অংশগ্রহণকারীদের দিকনির্দেশনা দেয়া হয়েছে। কঠোর স্বাস্থ্যবিধি ও নিয়ম-কানুন আরোপ করা হয়েছে।

সূত্র মতে, আগামী ২৮ জুলাই থেকে শুরু হবে হজ। ইলেকট্র্রনিক স্ক্রিনিংয়ের মাধ্যমে সৌদি আরবে বসবাসরত ১৬০ দেশের বাসিন্দাদের আবেদনের ভিত্তিতে হজে অংশ নেয়ার সুযোগ প্রদান করা হবে।

মোট হজ পালনকারীদের ৩০ শতাংশ হবেন সৌদি নাগরিক। সামরিক বাহিনী ও স্বাস্থ্য বিভাগে কর্মরতরা এবারের হজে অগ্রাধিকার পাচ্ছেন বলে জানা যায়। সৌদির হজ ও ওমরা মন্ত্রী ড. মোহাম্মাদ সালেহ বিন তাহের বেনতেন সংবাদ মাধ্যমগুলোকে এ তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে আল আরাবিয়া ও সৌদি গেজেটের তথ্য মতে, গত ১০-১৫ জুলাই পর্যন্ত অনলাইনে হজে অংশগ্রহণকারীদের আবেদন নেয়া হয়েছে। গণমাধ্যম দুটিতে উঠে এসেছে হজে অংশগ্রহণকারীদের জন্য বিশেষ কিছু দিকনির্দেশনা। যেসব শর্ত মেনে এবার হজে অংশগ্রহণ করতে হবে। আর তাহলো-

  • এবারের হজে অংশগ্রহণকারীদের চিহ্নিত ও নিশ্চিত করতে প্রত্যেককেই একটি করে স্মাট কার্ড দেয়া হবে।
  • কোভিড-১৯ প্রতিরোধে প্রত্যেককেই প্রয়োজনীয় সব সরঞ্জামাদিসহ একটি ব্যাগ সরবরাহ করা হবে।
  • হজের প্রতিটি রোকন স্থলে (পয়েন্টে) পর্যাপ্ত পরিমাণ জমজমের পানি সরবরাহ করা হবে।
  • কাবা শরিফ তাওয়াফে ও সাফা-মারওয়ায় সাঈ-তে যথাযথ নিরাপত্তার জন্য ২ মিটার দূরত্বে জীবাণুমুক্ত করণ ব্যবস্থা রাখা হবে।
  • মিনা-মুজদালিফা ও আরাফাতের ময়দানে প্রত্যেক হাজির জন্য কমপক্ষে ৯ মিটার স্থান বরাদ্দ থাকবে।
  • মিনায় আবাসিক স্থাপনাগুলো হজ যাত্রীদের জন্য প্রস্তুত করে রাখা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, হজ চলাকালীন নির্ধারিত সময়ে পবিত্র নগরী মক্কার হজ পালনের স্থান ঐতিহাসিক মিনা-মুজদালিফা ও আরাফাতের ময়দানে বিনা অনুমতিতে প্রবেশ করলেই ১০ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানা গুণতে হবে। জরিমানার এ বিধান ১৯ জুলাই থেকে ২ আগস্ট পর্যন্ত কার্যকর থাকবে।

উল্লেখ্য যে, শুধু ২০ থেকে ৫০ বছর বয়সিরা এবার হজের অনুমতি পাবেন। এ সব লোকদের মধ্যে যারা দীর্ঘস্থায়ী কোনো রোগে আক্রান্ত নন, তারও অনুমতির আওতায় থাকবে। তবে ৬৫ বছরের বেশি এবং যাদের কোনো সংক্রামক ব্যাধি আছে, তাদের হজে অংশগ্রহণের অনুমতি দেয়া হবে না।

হজ শুরু হওয়ার আগে অবশ্যই স্বাস্থ্য পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। কেউ কোভিড-১৯ আক্রান্ত কি না, সে বিষয়ে বিশেষ নজর রাখা হচ্ছে। হজ শেষে প্রত্যেককেই বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।