জয়নুল হক সিকদারের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীকে মালদ্বীপে এন.বি.এল এর দোয়া মাহফিল

0
37
জয়নুল হক সিকদারের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকীকে মালদ্বীপে এন.বি.এল এর দোয়া মাহফিল

গত ১০শে (ফেব্রুয়ারী) স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় মালদ্বীপে অবস্থিত এন.বি.এল. মানি ট্রান্সফারের উদ্যোগে ন্যাশনাল ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা জয়নুল হক সিকদারের প্রথম মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। ন্যাশনাল ব্যাংক মালদ্বীপ প্রা: লি: এর ভারপ্রাপ্ত সিও মো: হায়দার আলী সাবু’র সঞ্চালনায় এন.বি.এল. মালদ্বীপ প্রা: লি: এর ডিরেক্টর মো. হান্নান খান কবির এর সভাপতিত্বে শোকসভা অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী শিক্ষক মীর সাইফুল ইসলাম।

উক্ত অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবাসী শিক্ষা উদ্যোক্তা ও মিয়াজ ইন্টারন্যাশনাল এর প্রতিষ্ঠাতা আহমেদ মোত্তাকি, প্রবাসী চিকিৎসক ডা: মুক্তার আলী, ভিউ কনস্ট্রাকশন প্রাইভেট লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ দুলাল হোসেন, প্রবাসী ব্যবসায়ী মো.মজিবুর রহমান, মো: জহিরুল ইসলাম, মো: আলিম দূরানী ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রবিত্র কোরআন তেলোয়াত শেষে, মরহুমকে (জয়নুল হক সিকদার) শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করার লক্ষে দাড়িয়ে এক মিনিট নিরিবতা পালন করা হয়। শোকসভায় বক্তারা বলেন, মৃত্যু হল মানুষের জীবনের একটি বাস্তব সত্য যাহা সকলের জীবনে অবধারিত। তবু ও মেনে নেওয়া খুব কষ্টসাধ্য। তেমনি গুণিজনদের বিয়োগজনিত ব্যথার থেকে বড় শোক বোধহয় আর কিছুই হয় না।
১০শে ফেব্রুয়ারি ন্যাশনাল ব্যাংক পরিবারের জন্য গভীর শোকের দিন । এই দিনে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেডের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নুল হক সিকদার মৃত্যু বরণ করেন। জয়নুল হক সিকদার শুধু একটি নাম নয় একটি প্রতিষ্ঠান। এই কিংবদন্তী মানুষটি দীর্ঘ সাত দশক ধরে দেশের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, আবাসন, পর্যটন, অর্থনীতি, ব্যাংকিংসহ বিভিন্ন খাতে অনেকগুলি প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন। এসব প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি ২০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছেন। ১৯৩০ সালের ১২ অগাস্ট আসামে জন্মগ্রহণ করেন জয়নুল হক সিকদার। ১৯৪৭ সালে দেশ ভাগের সময় পরিবারের সাথে তিনি বাংলাদেশে চলে আসেন।
পরিশেষে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। এবং মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত করে দোয়া ও মুনাজাত করা হয।