শেখ রাসেল দিবসে কুইজ প্রতিযোগিতায় পুরস্কার পেলেন রিয়াদে বাংলাদেশি শিক্ষার্থী আহনাফ আজমাইন

সৌদি আরব প্রতিনিধি

0
152

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের ৫৭তম জন্ম বার্ষিকী উপলক্ষে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আয়োজনে অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতায় সৌদি রাজধানী রিয়াদে অবস্থিত বাংলাদেশ জাতীয় কারিকুলাম অনুযায়ী পরিচালিত বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থী আহনাফ আজমাইন আনান জাতীয় পর্যায়ে পাঁচজন বিজয়ীর মধ্যে একজন নির্বাচিত হয়ে অসাধারণ সাফল্যের স্বাক্ষর রেখেছেন।

সোমবার (১৮ অক্টোবর) শেখ রাসেল দিবসে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা একটি আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। আনান সৌদি আরবে অবস্থান করায় তার পক্ষে পুরস্কার গ্রহণ করেন তার ফুফাতো ভাই মেরিন ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আবু সাঈদ।

পুরস্কার হিসেবে একটি সনদ ও একটি ল্যাপটপ প্রদান করা হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতে জাতীয় পর্যায়ে এধরণের একটি প্রতিযোগিতায় পুরস্কৃত হয়ে আনান এবং তার পরিবার আবেগ আপ্লুত হয়েছেন। তারা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

তার এই সাফল্যে বাংলাদেশ দূতাবাস, বিদ্যালয়ের বোর্ড ডাইরেক্টর্সের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোস্তাক আহম্মদ ও বিআইএস পরিবার তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

উল্লেখ, আহনাফ আজমাইন আনানের বাবা খাদেমুল ইসলাম বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক। মা মিসেস আক্তার জাহানও একই প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র শিক্ষিকা। তারা তাদের সন্তানদের মুক্তিযুদ্ধ ও জাতির পিতার আদর্শে সত্যিকারের দেশপ্রেমিক হিসেবে গড়ে তোলার ব্যপারে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ। তারা তাদের সন্তানদের জন্য সবার দোয়া
কামনা করেছেন, তারা যেন সত্যিকারের মানুষ হয়ে ওঠতে পারে।

আহনাফ দুই ভাইয়ের মধ্যে ছোট। আহনাফের মতো তার বড় ভাই এহসানুল রাফিদ আদিবও অসাধারণ মেধাবী। সেও বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজে দশম শ্রেণিতে প্রথম। তারা ১৭ মার্চ জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস, রিয়াদ কর্তৃক আয়োজিত বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় চারটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার জিতে নিয়েছে। শেখ রাসেল দিবসে সেসব পুরস্কার গ্রহণ করে তারা বেশ আনন্দিত। সৌদি আরবের বাংলাদেশ কমিউনিটিও তাদের সাফল্যে গর্বিত।