বিশ্ববাজারে বাড়ছে সোনার দাম

করোনা সংক্রমণের ফলে এখনও অনেক দেশ ও শহরে লকডাউন চললেও বিশ্ববাজারে বাড়ছে সোনার দাম। আজ বুধবার আন্তর্জাতিক বাজারে সোনার দাম বেড়ে প্রায় ৮ বছরে সর্বোচ্চ হয়েছে। স্পট সোনার দাম ০.২ শতাংশ বেড়ে প্রতি আউন্স হয় ১ হাজার ৭৭০.৯২ ডলার। দিনের শুরুতে এশিয়ার বাজারে সোনার দাম ছুঁয়েছিল প্রতি আউন্স ১ হাজার ৭৭৩ ডলার। যা ২০১২ সালের অক্টোবরের পর সর্বোচ্চ দাম। এ দিন বিশ্ব শেয়ারবাজারে দরপতন ঘটে ০.৩ শতাংশ।

বিশ্লেষকরা বলছেন, মূলত তিন কারণে বিশ্বজুড়ে সোনার দাম অব্যাহতভাবে বেড়ে চলেছে। প্রথমত, বিশ্বের অনেক অঞ্চলে করোনার রেকর্ড সংক্রমণের কারণে অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তা বাড়ছে। এতে দরপতন ঘটছে শেয়ারবাজারে। তাই অস্থির এ সময়ে ব্যবসায়ীরা নিরাপদ হিসেবে সোনায় বিনিয়োগ বাড়াচ্ছেন। দ্বিতীয়ত, ডলার দূর্বল হওয়ায় এটিও সোনার দাম বৃদ্ধিতে প্রভাব ফেলছে। তৃতীয়ত, অর্থনীতি সুরক্ষায় অনেক দেশ বিপুল অংকের প্রণোদনা দিচ্ছে, সেই সঙ্গে কমাচ্ছে সুদের হার। এর কারণেও সোনার দাম বাড়ছে।

সিএনবিসির এক বিশ্লেষণে বলা হয়, বিশ্বজুড়ে কেন্দ্রীয় ব্যাংকগুলো অর্থনীতি রক্ষায় ব্যাপকভাবে প্রণোদনা দিচ্ছে। এর পাশাপাশি সুদের হার নিন্মমুখী রাখছে। এতে এ বছর সোনার দাম ১৬ শতাংশের বেশি বেড়েছে। মূল্যস্ফীতি ও মুদ্রাবাজার অস্থিরতার সময়ে সোনাকে নিরাপদ বিনিয়োগ মনেকরা হয়।
অ্যাক্সিকর্পের প্রধান বৈশ্বিক বাজার বিশ্লেষক স্টেফেন ইনেস বলেন, ডলার দুর্বল হওয়ার পাশাপাশি করোনা সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় বিভিন্ন দেশে অর্থনীতি বাঁচাতে আরো প্রণোদনার দাবি তৈরি হচ্ছে। এমন পরিস্থিতিতে সংগত কারণেই সোনার দাম উর্ধ্বমুখী থাকবে।

এদিকে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারের পাশাপাশি বাংলাদেশের বাজারেও বৃদ্ধি পেয়েছে সোনার মূল্য। গতকাল মঙ্গলবার (২৩ জুন) থেকে সোনার নতুন দাম কার্যকর হতে শুরু হয়। গত সোমবার বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস) দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমনটি জানানো হয়।

এতে বলা হয়, কভিড-১৯ এর প্রাদুর্ভাবের কারণে আন্তর্জাতিক বাজারে বর্তমানে সোনার মূল্য সর্বোচ্চ অবস্থানে রয়েছে। এর ফলে দেশীয় বুলিয়ন মার্কেটে সোনার মূল্য অনেকাংশে বৃদ্ধি পেয়েছে। বাজুস’র কার্যনির্বাহী কমিটি টেলিকনফারেন্সে এই সিদ্ধান্ত নেয়।

নতুন দাম অনুযায়ী ২২ ক্যারেট প্রতি ভরি সোনার বর্তমান দাম বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৯ হাজার ৮৪৩ টাকা। ২১ ক্যারেটের প্রতি গ্রাম সোনার দাম হয়েছে ৬৬ হাজর ৬৯৫ টাকা। ১৮ ক্যারেটের প্রতি গ্রাম সোনার দাম ৫৭ হাজার ৯৫০ টাকা। সনাতন পদ্ধতির প্রতি গ্রাম সোনার দাম ৪৭ হাজার ৬৩১ টাকা।

এর আগে ২২ ক্যারেট প্রতি ভরি সোনার দাম ছিল ৬৪ হাজার ১৩০ টাকা। ২১ ক্যারেট প্রতি ভরি সোনার দাম ছিল ৬১ হাজার ৭৯৮ টাকা। ১৮ ক্যারেটের প্রতি ভরি সোনার দাম ছিল ৫৬ হাজার ৭৮৪ টাকা। আর সনাতন পদ্ধতির প্রতি গ্রাম সোনার দাম ছিল ৪৪ হাজার ১৬ টাকা।