চাঁদপুর, কুচুয়ার বিএনপির কোন্দল চরমে,মিলন কে দ্বায়িত্ব দিন,

মিলন ও মিলনের সহধর্মিণী ফাইল ছবি,

এএনবি২৪.কম ডেস্ক,

মিলন ও মিলনের সহধর্মিণী ফাইল ছবি,

দেশবাসীকে ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা ও অভিন্দন এবং ঈদ মোবারক জানিয়ে কিছু কথা শুরু করচ্ছিঃ-এই কথা গুলো লিখেছেন মালদ্বীপ বিএনপির প্রচার সম্পাদক খলিলুর রহমান
তার লেখা গুলো আমাদের এএনবি পাঠকের জন্য তুলে ধরাহল

তিনি আরো লিখেন ছোট বেলায় রাজনীতি কি তা বুঝতে পারতাম না।
যখন আ,ন,ম এহছানুল হক মিলন সাহেব ও তাঁহার সহধর্মিণী নাজমুন নাহার হক বেবী আপা চাঁদপুর কচুয়া বিএনপি বলতে শুরু করেন আর ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে মিলন সাহেব নির্বাচন করেন।

মিলন সাহেব স্বাধীনতার ঘোষক মেজর জিয়াউর রহমান, দেশমাতা বেগম খালেদা জিয়া,দেশ নায়ক তারেক রহমান সহ জিয়া পরিবার কি কেমন এবং দেশের জন্য কি কি অবদান সেই কথা গুলো তুলে দরেন ছোট বড় সবার কাছে
তখন থেকে বিএনপির নাম এবং প্রতিষ্ঠাতা সভাপতির, দলের চেয়ারম্যানদের নাম, আ,ন,ম এহছানুল হক মিলন সাহেবের মুখ থেকেই চাঁদপুর, কচুয়ার ৮০% জনগণ আচার-আচরণ, নম্রতা, ভদ্রতা ও রাজনৈতিক অবকাঠামো শিখতে পেরেছি ।

আজ সেই এহছানুল হক মিলন সাহেবকে নিয়ে কিছু অসৎ দালাল মানুষের টাকা মেরে খেয়ে বড় লোক হওয়া লোভী নেতারা বদনাম ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য বহু রকমের পন্থী করে আছেন

এতে করে আমাদের চাঁদপুর, কচুয়ার নিরহ জনগণ এবং নেতাকর্মীদের ভিতর আতংক ছড়িয়ে দিচ্ছে
এতে করে দলের ভিতর বিশ্বাসের উপর আস্থা ও ভাবমূর্তি নষ্ট হচ্ছে

খলিল লিখেন, দলের হাইকমান্ডের প্রতি অনুরোধ চাঁদপুর, কচুয়ার রাজনৈতিক ধ্বংসের দিকে না দিয়ে চাঁদপুর, কচুয়ার মানুষকে দলের প্রতি বিশ্বাস ফিরিয়ে আনার জন্য আ,ন,ম এহছানুল হক মিলন সাহেবকে ডেকে দলের হাইকমান্ড যদি আদেশ করেন চাঁদপুর, কচুয়া সকল নেতাকর্মীদের দায়িত্ব পালন করার জন্য।

তাহলে চাঁদপুর, কচুয়ার জনগণ দলের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করতে পারবেন আর অসৎ নেতাদের ভিতরগত কোন্দল মিটে যাবে এবং দলের নেতাকর্মীরা দলকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন।