কুমিল্লা বুড়িচংয়ে ব্যাবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা চেষ্টা

কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ২ নং বাকশীমুল ইউনিয়ন পরিষদের ছিনাইয়া গ্রামের মোঃ সুলতান আহমদের ছেলে মোঃ রায়হান (৩১) কে দেশীয় অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম ও মেরে ফেলার চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে। এ নিয়ে বুড়িচং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ।অভিযোগ সূত্রে জানা যায় যে মোহাম্মদ রায়হান একজন ব্যবসায়ী লোক। সে তার ব্যবসার লেনদেন জড়িত সকল কাজ শেষ করে গত ২০/০৩/২০২০ তারিখে সন্ধ্যার ৬ টার সময় কুমিল্লা থেকে বুড়িচং দিয়ে আসছিল। বুড়িচং ডাক বাংলোর কাছে আসতেই কিছু স্হানীয় সন্ত্রাসী তার উপর পরিকল্পিত হামলা চালায়।

তার চাচাত ভাই মোহাম্মদ শুভ পিতা মোহাম্মদ লিটন মিয়া সহ তার সাথে ঐ মূহুর্তে ছিল। অভিযোগ সূত্রে আরো জানা যায় যে বিবাদী (১) মোঃ আতিক (২৯) পিতা মোঃ নজরুল ইসলাম গ্রাম জগতপুর (২) মোঃ মামুন (২৬) পিতা মোঃ আবুল হোসেন গ্রাম জগতপুর (৩) মোঃ হৃদয় (২৫) পিতা মোঃ অহিদুর রহমান (৪) মোঃ কামরুজ্জামান (২৪) পিতা মোু জলিল, বুড়িচং সহ আরো অজ্ঞাত ৪/৫ জন মিলে মোঃ রায়হানের উপর পরিকল্পিত হামলা চালায়।

সে জানায় সন্ত্রাসীরা বেপরোয়া ও উশৃংখল প্রকৃতির লোক। তারা হামলা সময় মোঃ রায়হানের কাছ থেকে ৮ লক্ষ ব্যবসায়িক লেনদেনের টাকা নিয়ে যায়। শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাত করে তাকে সুইজ গিয়ার দিয়ে চোখের উপরের একটি অংশে আঘাত করে। রক্তাক্ত অবস্থায় স্হানীয় লোকজন তাকে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন।

অভিযোগ সূত্রে সাক্ষী(১) মোঃ শুভ পিতা মোঃ লিটন মিয়া গ্রাম ছিনাইয়া (২) মোঃ সুৃমন পিতা মোঃ আবদুস সালাম, (৩) মোঃ কাউছার পিতা মৃত আবদুল খালেক গ্রাম গোবিন্দপুর। সাক্ষী গন বলেন সন্ত্রাসীরা আমাদের সম্মুক্ষে রায়হান কে বেদম মারধর করেছে তার কাছ থেকে জোর পূর্বক টাকা ছিনিয়ে নিয়েছে। আমরা না থাকলে তাকে প্রাণে মেরে ফেলতো। আমরা তাকে প্রথমে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাই। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে কুমেকে পাঠান। সে এখন কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রয়েছে।

সুত্র ভোরের দেশ