ইরাকে পালিত হলো বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী

বাংলাদেশ দূতাবাস, বাগদাদ, ইরাকে বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদযাপিত এবং বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠান আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির আয়োজন করে দূতাবাস।

দিবসের শুরুতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন এবং শিশুদের নিয়ে কেক কেটে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ দূতাবাসের মান্যবর রাষ্ট্রদূত জনাব আবু মাকসুদ মোঃ ফরহাদ। এরপর অনুষ্ঠানে জন্মশতবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মাননীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রী এবং মাননীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী পাঠ করা হয়। বাণী পাঠের পর উপস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারী এবং তাঁদের পরিবারের সদস্যদের উপস্থিত ও অংশগ্রহণে একটি আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় সমাপনী বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত বিদেশী ও বাংলাদেশের নতুন প্রজন্মের মধ্যে ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধীনতা অর্জনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক নেতৃত্ব ও এ কালজয়ী মহানায়কের সংগ্রামী জীবন-আখ্যান, আদর্শ ও দর্শনের লালন-পালন ও প্রচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালনে উপস্থিত সকলের প্রতি আহবান জানান। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়া ও বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে সকলের প্রতি অনুরোধ জানান। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের সকল শহীদদের আত্মার প্রতি মাগফেরাত কামনা করে এবং সম্প্রতি বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ েেক প্রবাসীসহ সকল বাংলাদেশীদের রক্ষার জন্য দোয়া ও বিশেষ মোনাজাত করা হয়। অনুষ্ঠানের শেষ পর্বে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনভিত্তিক একটি প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়।

উল্লেখ্য যে, করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারনে স্বাগতিক দেশের পরামর্শ অনুযায়ী সেমিনার এবং শিশু কিশোর সমাবেশ স্থগিত করে ঘরোয়াভাবে আনুষ্ঠানিকতার মধ্যেদিয়ে দিবসটি উদ্যাপন করা হয়