নিরাপত্তা জনিত কারণে লাখ লাখ স্মার্টফোনে বন্ধ হয়ে গেল হোয়াটসঅ্যাপ

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

নিরাপত্তা জনিত কারণে লাখ লাখ স্মার্টফোনে বন্ধ হয়ে গেল হোয়াটসঅ্যাপ। অ্যান্ড্রয়েড বা আইফোনের যেসব ডিভাইসে পুরোনো অপারেটিং সিস্টেম চালু রয়েছে সেগুলোতে ফেসবুক মালিকানাধীন এ অ্যাপটি আর কাজ করবে না। গত ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসব স্মার্টফোনে হোয়াটসঅ্যাপ সেবা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপ জানিয়েছে, অ্যাপটি ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই এ পদক্ষেপ নেয়াটা জরুরি ছিল।

যেসব স্মার্টফোনে অ্যানড্রয়েড ২.৩.৭ ভার্সন বা তার চেয়ে পুরোনো এবং আইফোনে আইওএস ৮ বা তার চেয়ে পুরোনো অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে সেসব ফোনে এ অ্যাপটি আর কাজ করবে না।

সেসব অপারেটিং সিস্টেমে হোয়াটসঅ্যাপ সেবা বন্ধ রয়েছে যেগুলোতে আসলে নতুন কোনো ডিভাইসে আর আপডেট বা ইনস্টল করা হয় না। তবে বেশিরভাগ ব্যবহারকারীরা শুধু তাদের অপারেটিং সিস্টেম আপডেট করে বার্তা পাঠানোর এ অ্যাপটি আবার ব্যবহার করতে পারবেন। তবে কিছু কিছু ডিভাইস যেমন- আইফোন ফোরএস, যা শুধু আইওএস ৭-কেই সাপোর্ট করে সেটি আর এ অ্যাপ চলবে না।

সিসিএস ইনসাইট-এর বিশ্লেষক বেন উড বলেছেন, ‘নিজেদের সেবা সুরক্ষিত করা ছাড়া হোয়াটসঅ্যাপের আর সুস্পষ্ট কোনো বিকল্প ছিল না। এটার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে, এ অ্যাপটি পুরোনো স্মার্ট ফোনগুলোতে আর কাজ করবে না। এ পদক্ষেপ অ্যাপটি ব্যবহারকারীদের ওপর ব্যাপকভাবে প্রভাব ফেলবে, বিশেষ করে প্রবৃদ্ধি বাজারে কারণ সেখানে পুরোনো ডিভাইসের সংখ্যাই তুলনামূলকভাবে বেশি।’

প্রতিষ্ঠানটির এক মুখপাত্র বলেছেন, ‘এ সিদ্ধান্ত নেয়াটা আমাদের জন্য কঠিন ছিল, কিন্তু হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার করে পরিবার, বন্ধু এবং প্রিয়জনদের সাথে যোগাযোগের পথ সুগম করার জন্য এটা দরকার ছিল।’

২০১৬ সালে অসংখ্য ডিভাইস এবং ২০১৯ সালের ৩১ ডিসেম্বর সব ধরনের উইন্ডোজ ফোন থেকে সেবা প্রত্যাহারের পর এ পদক্ষেপ নিল হোয়াটসঅ্যাপ। -বিবিসি