দ্রুত গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে ইরানের পরমাণু সমৃদ্ধকরণ কর্মসূচি: রুহানি

✍ আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি বলেছেন, ইরানের উপর চাপ বাড়ছে, তারপরও আমাদের অগ্রগতি অনেক ভালো। আমরা চুক্তি করার পূর্বে যে পরিমাণে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করতাম, বর্তমানে তার পরিমাণ আগের চেয়েও বেড়েছে।’

বৃহস্পতিবার এক টেলিভিশন ভাষণে এ সব কথা বলেন রুহানি।

হাসান রুহানি বলেছেন, মার্কিন ঘাঁটিতে আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর তাদের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় পেন্টাগন ২৪ ঘণ্টা নির্ঘুম অবস্থায় ছিল। এখন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো আমরা তাদেরকে হুমকি দেওয়ার অবস্থান থেকে পিছু হটতে বাধ্য করব।
সোলেইমানিকে হত্যার নিন্দা জানিয়ে বলেন, দেখুন ইরানের একজন জেনারেলকে হত্যার পর দক্ষিণ এশিয়াসহ গোটা বিশ্বে কত বড় প্রভাব পড়েছে। এই শাহাদাত বিশ্বের মুদ্রা, জ্বালানি তেল ও শেয়ার বাজারসহ গোটা বাজার পরিস্থিতির ওপর প্রভাব ফেলেছে এবং মনস্তাত্ত্বিক ও রাজনৈতিক দিক থেকেও বিশ্বের ওপর এর প্রভাব লক্ষ্যণীয়।

২০১৮ সালে যুক্তরাষ্ট্র পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে আসার ঘোষণা দেওয়ার পর এই প্রথম সমৃদ্ধকরণ বিষয়ে সরাসরি বক্তব্য দিয়েছে ইরান।

ইরানকে পরমাণু অস্ত্র সমৃদ্ধকরণ থেকে বিরত রাখতে ২০১৫ সালে ‘জয়েন্ট কমপ্রিহেনসিভ প্ল্যান অ্যাকশন’ নামের একটি চুক্তি করেছিল যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, জার্মানি, ফ্রান্স, রাশিয়া এবং চীন। এই চুক্তির শর্ত ছিল, ইরান পরমাণু সমৃদ্ধকরণ থেকে সরে আসবে বিনিময়ে ইরানের উপর আরোপিত সকল অবরোধ তুলে নেওয়া হবে। তবে ২০১৮ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ওই চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দেন এবং ইরানের উপর নানা অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। এইসব নিষেধাজ্ঞার ফলে ইরানের অর্থনীতি কার্যত পঙ্গু হয়ে পড়ে।

চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে যাওয়ার পর ইরানও চুক্তির শর্ত ভঙ্গ করে পরমাণু সমৃদ্ধকরণ কাজ এগিয়ে নিতে থাকে। বর্তমানে সোলাইমানি ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চলা উত্তেজনা চলছে।