মেয়েদের কাজ রান্নাঘরে, তাদের উচ্চশিক্ষিত হওয়ার দরকার নেই : আল্লামা শফি

ডেস্ক রিপোর্টঃ

হেফাজতে ইসলামের আমির ও দারুল ইসলাম মঈনুল ইসলাম হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালক আল্লামা শাহ আহমদ শফি বলেছেন, দেশে সহশিক্ষার কারণে অনেক গুনাহ হচ্ছে। এই কারণে দেশে শান্তি নেই। সহশিক্ষার কারণে দেশে শান্তি নয়, অ’শান্তিই বৃদ্ধি পাচ্ছে। মহিলাদের ৪র্থ অথবা ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত পড়লে হয়ে যাবে।

তিনি বলেন, মহিলাদের কাজ রান্নাঘরে। তাদের এরকম উচ্চশিক্ষিত হওয়ার দরকার নেই। পড়ানোর প্রয়োজন হলে আলাদা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও মহিলা শিক্ষক দিয়ে মহিলাদের শিক্ষাদান এবং একইভাবে পুরুষদের জন্য পুরুষ শিক্ষক দিয়ে আলাদা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পাঠদান করা যেতে পারে।

শুক্রবার বিকেলে হাটহাজারী মাদ্রাসার বার্ষিক মাহফিল ও দস্তারবন্দী সম্মেলনে সভাপতির বক্তব্য তিনি আরো বলেন, ‘আমি সহশিক্ষার বিপক্ষে বলেছি কিন্তু অনেকে না বুঝে আমাকে নিয়ে ব’দনা’মি করছে। তারা বলছে যে মৌলভী শফি মেয়েদেরকে লেখাপড়া করার জন্য বা’ধা দিচ্ছেন। আমি মেয়েদের লেখাপড়ায় বাধা দিচ্ছি না। আমি ছেলে-মেয়ে একসঙ্গে লেখাপড়ার বিপক্ষে বলছি।’

পত্র-পত্রিকার উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, মাস্টাররাও ছাত্রীদের সঙ্গে কু’ক’র্মে জড়িয়ে পড়ছেন। সহশিক্ষায় মেয়েদের পোশাকও অনেকটা ছেলেদের মতো। সেখানে ছেলে-মেয়ে বন্ধুত্ব করছে, ঘোরাফেরা করছে- আরও কি করছে তা আমার আর বলার দরকার নেই। এই সহশিক্ষার মাধ্যমে যে যেনা হচ্ছে তাতে করে আপনাদের (অভিভাবক) ব্যবসায় কিভাবে উন্নতি হবে? সহশিক্ষার মাধ্যমে দেশে যে অনেক গু’না’হ হচ্ছে, মহান আল্লাহ’র না’ফর’মানি হচ্ছে-আমি শুধু এই কথাই বলেছি। অথচ পত্রিকায় আমার নামে অন্যটা লিখে ব’দনা’মি করা হচ্ছে।’

তিনি বলেন, ‘আজ মেয়েরা বোরকা পড়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যায় না। তারা বোরকা ছিঁ’ড়ে ফেলে। এত বড় গু’না’হ যে দেশে চলছে তাতে দেশে শান্তি না-কি অ’শা’ন্তি আসবে? অথচ আপনারা এগুলো নিয়ে কিছু বলছেন না।’