আসন্ন রমজান মাসে সরকারি, আধা-সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের অফিস সময় সকাল ৯টা থেকে বিকেল সাড়ে ৩টা পর্যন্ত নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে দুপুর ১টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত ৩০ মিনিট নামাজের জন্য বিরতি থাকবে। তবে সুপ্রিম কোর্ট, ব্যাংক, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি, বাংলাদেশ রেলওয়ে, পোস্ট অফিস এবং এ ধরনের প্রতিষ্ঠান নিজেদের সুবিধামতো সময়সূচি নির্ধারণ করবে।

সোমব প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়। বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. শামসুল আরেফিন প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ৭ বা ৮ মে থেকে মুসলমানদের সিয়াম সাধনার মাস রমজান শুরু হবে। বর্তমান অফিস সময় সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত।

শামসুল আরেফিন বলেন, ‘রমজানে দুপুর সোয়া ১টা থেকে দেড়টা পর্যন্ত জোহরের নামাজের বিরতি থাকবে। সাপ্তাহিক ছুটি থাকবে যথারীতি শুক্র ও শনিবার। বর্তমানে দেশের সব সরকারি, আধা সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত ও আধা স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার কর্মকালীন সূচি হচ্ছে সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত। ঢাকা মহানগরীর সব ব্যাংক, বিমা, অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের অফিস সময়সূচি সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৬টা পর্যন্ত। পবিত্র রমজান মাসে সেহরি ও ইফতারের সময় বিবেচনায় নিয়ে রোজাদারদের নির্ধারিত সময়ে অফিসে যাওয়া-আসার সুবিধার্থে সময়সূচি পরিবর্তন করা হয়। তবে ব্যাংক, বিমা, অন্যান্য আর্থিক প্রতিষ্ঠান, ডাক, রেলওয়ে, হাসপাতাল, রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্পপ্রতিষ্ঠান, কলকারখানা এবং যাদের সার্ভিস অতি জরুরি, তারা তাদের নিজস্ব আইন অনুযায়ী জনস্বার্থ বিবেচনা করে নিজস্ব অফিস সময়সূচি নির্ধারণ করে। সব কোর্টের সময়সূচি নির্ধারণ করবে সুপ্রিম কোর্ট।’