সিটি নির্বাচনে কবরের নীরবতা : রিজভী

ruhul kabir rizvi ahamed

ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে রাতেই ভোট দেয়া হয়ে গেছে মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, সিটি নির্বাচনে কবরের নীরবতা বিরাজ করছে। আমরা নির্বাচন বলতে যে উৎসব মনে করি -তা কি কোথাও আছে?

বৃহস্পতিবার (২৮ ফেব্রুয়ারি) সকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রিজভী বলেন, গতকাল (বুধবার) রাতেই ওটা (জয়-পরাজয়) নির্ধারণ হয়ে গেছে। সরকারের যে প্রার্থী আছে তাকে কিছুক্ষণ পরই নির্বাচিত ঘোষণা করা হবে।

বিএনপির নির্বাচন করার শক্তি নেই -ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, একটা কথা আছে না, ‘ছায়ার সাথে যুদ্ধ করে গাত্র হলো ব্যথা’। কার সাথে যুদ্ধ করব? গতকাল (বুধবার) রাতেই ওটা ঠিক হয়ে গেছে। সরকারের মনোনীত যিনি আছেন তার ব্যালটে বাক্স অলরেডি ভরে গেছে। যেখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা থাকবে, সুষ্ঠু নির্বাচন হবে সেখানেই তো প্রতিযোগিতার ব্যাপার থাকে।

রিজভী বলেন, দেশে-বিদেশে সব জায়গায় বাংলাদেশকে একটি স্বৈরাচারী দেশ হিসেবে পরিণত করেছে। এসব নির্বাচন হলো গণতন্ত্রের লেবাস পড়া। স্বৈরতন্ত্রের মধ্যে প্লাস্টিক সার্জারি করে গণতন্ত্র ভাব দেখানো। তবে সেটাও পারছে না, ব্যর্থ হয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, ২৯ ডিসেম্বরের মিডনাইট নির্বাচনের পর এখন শেখ হাসিনা নতুন পাটি গণিত কষছেন। আর সেটি হচ্ছে দেশের অবিসংবাদিত জাতীয়তাবাদী নেত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে ধীরে ধীরে নিঃশেষ করে দেয়া। আমরা আবারও আহ্বান জানাচ্ছি এই মুহূর্তে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত মুক্তি দিতে হবে।

গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্তে সরকারের সমালোচনা করে বিএনপির এই নেতা বলেন, এখন মধ্যরাতের সরকার গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়া শুরু করছে। সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী বলেছেন, গ্যাসের দাম বাড়ানো হবে। গণবিরোধী সরকারের কাছে জনগণের ইচ্ছার কোনো মূল্য নেই। জনগণের সরকার নয় বিধায় গ্যাসের দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত মেনে নেবে না জনগণ। এটি ক্ষমতাসীনদের জন্য আরেকটি লুটপাটের সুযোগ সৃষ্টি করবে।

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির ঘোষণা জনগণ মেনে নেবে না উল্লেখ করে বিএনপির পক্ষ থেকে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি। একই সঙ্গে অবিলম্বে এ ধরনের গণবিরোধী ঘোষণা থেকে সরে আসার আহ্বান জানান বিএনপির এ নেতা।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূইয়া, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।